মাথা ব্যথা হলে করণীয় - মাথা ব্যথা কোন রোগের লক্ষণ

আসসালামু আলাইকুম মাথা ব্যথা হলে করণীয় কি এবং মাথা ব্যথা কোন রোগের লক্ষণ যদি জানতে চান তাহলে আজকের আর্টিকেলটি আপনার জন্য। আজকের আর্টিকেলে বিস্তারিত ভাবে আলোচনা করা হবে মাথা ব্যথা হলে করণীয় সহ এই সম্পর্কিত আরো কিছু বিষয়ে।সেজন্য মাথা ব্যথা হলে করণীয় কি এই সম্পর্কে ভালোভাবে জানার জন্য পুরো আর্টিকেলটি শেষ পর্যন্ত পড়ে ফেলুন।
মাথা ব্যথা হলে করণীয়

মাথা ব্যথার কারণ মাথা ব্যথা হলে করণীয় মাথা ব্যথা কোন রোগের লক্ষণ মাথা ব্যথা কমানোর উপায় এ সকল বিষয়ে আজকের আর্টিকেলে বিস্তারিতভাবে আলোচনা করা হবে। তাহলে চলুন জেনে নেওয়া যাক এই সকল বিষয়ে।

পোস্ট সূচিপত্রঃ মাথা ব্যথা হলে করণীয় - মাথা ব্যথা কোন রোগের লক্ষণ 

মাথা ব্যথার কারণ 

মাথা ব্যাথা বিভিন্ন কারণে হয়ে থাকে যেমন অনেকের মাইগ্রেনের মাথাব্যথা হয়ে থাকে এরকম আরো বিভিন্ন রকম কারণ রয়েছে সেই কারণগুলোর জন্য মাথা ব্যথা করে থাকে। জেনে রাখুন মাথা ব্যথার কারণ গুলো কি কি অর্থাৎ কি কি কারণে মাথা ব্যথা হয়ে থাকে বা হতে পারে।

  • অতিরিক্ত টেনশন এবং মানসিক চাপের জন্য মাথা ব্যথা হয়ে থাকে
  • অতিরিক্ত মদ্যপান এবং কফি পান করার জন্য মাথাব্যথা হয়ে থাকে।
  • ঠিকমতো ঘুম না হওয়া মাথা ব্যথার কারণ। 
  • মোবাইল বা কম্পিউটার স্কিনের আলোর জন্য মাথা ব্যাথা করে।
  • অনেক সময় ধরে খালি পেটে থাকা অর্থাৎ না খেয়ে থাকা মাথাব্যথার কারণ।
  • অতিরিক্ত কড়া ধূপ বা সুগন্ধি নাকে লাগলে সেটা মাথা ব্যথার কারণ।
  • মেয়েদের ক্ষেত্রে চুল অতিরিক্ত টাইট করে বাধলে সেটা হতে পারে মাথাব্যথার কারণ।
  • বিভিন্ন রকম ঔষধ অতিরিক্ত সেবন করলে সেটাও মাথা ব্যথার কারণ। 
  • চোখ, কান অথবা দাঁতের কোন সমস্যা হলে সেই কারণেও মাথা ব্যথা করে থাকে।
  • মস্তিষ্কে টিউমার হলে সেটাও হতে পারে মাথা ব্যথার কারণ।
  • মাথায় আঘাত জনিত কারণে মাথা ব্যথা হয়ে থাকে। 

মাথা ব্যথা কোন রোগের লক্ষণ

মাথা ব্যথা কোন রোগের লক্ষণ কারো যদি অতিরিক্ত মাথা ব্যাথা করে তাহলে এটা হতে পারে বিভিন্ন রোগের লক্ষণ। অতিরিক্ত মাথা ব্যথা হতে পারে ব্রেন টিউমার রোগের লক্ষণ। আবার কারো যদি হঠাৎ করে অতিরিক্ত মাথা ব্যথা করে হয় তাহলে স্ট্রোক করার সম্ভবনা রয়েছে।  

আরো পড়ুনঃ ডেঙ্গু জ্বর হলে করণীয় - ডেঙ্গু জ্বর হলে কি খেতে হবে 

মাথাব্যথা আরেকটি রোগের লক্ষণ সেটা হলো মাইগ্রেন অনেকের মাইগ্রেনের কারণে মাথাব্যথা হয়ে থাকে। এমনকি অনেকদিন ধরে অতিরিক্ত মাথা ব্যাথার কারণে হতে পারে ক্যান্সার এইডস এর মত রোগ। এগুলো যদি হয় তাহলে মৃত্যুর ঝুঁকি রয়েছে। তাই জানতে হবে মাথা ব্যথা হলে করণীয় কি এবং দ্রুত মাথাব্যথা ভালো করতে হবে। আশা করছি জানতে পারলেন মাথা ব্যথা কোন রোগের লক্ষণ। 

মাথা ব্যথা হলে করণীয় - মাথা ব্যথা কমানোর উপায় 

মাথা ব্যথা হলে করণীয় কি বা মাথা ব্যথা কমানোর উপায় জেনে রাখা খুবই প্রয়োজন। কারণ বর্তমানে মাথা ব্যথা করে না এমন মানুষ খুব কমই রয়েছে। তাই সবাই  যদি মাথা ব্যথা হলে করণীয় কি এবং মাথা ব্যথা কমানোর উপায় জেনে রাখে তাহলে মাথা ব্যাথা হলে এই সকল উপায় অবলম্বন করে খুব সহজেই মাথাব্যথা ভালো করা যাবে। তাহলে জেনে রাখুন মাথা ব্যথা হলে করণীয় কি?

  • বেশি বেশি পানি পান করুন
  • মাথা ম্যাসাজ
  • ঠান্ডা পানিতে গোসল
  • আদা চা
  • এসেনশিয়াল অয়েল
  • আলো থেকে দূরে থাকা
  • লবঙ্গ
  • হাসি খুশি থাকা
  • আদা চিবিয়ে খাওয়া
  • চশমা ব্যবহার

বেশি বেশি পানি পান করুন -- অতিরিক্ত মাথা ব্যথা করলে ঠান্ডা পানি পান করুন তাহলে দেখবেন কিছুক্ষণের মধ্যে মাথা ব্যথা অনেকটা কমে গেছে। আমাদের শরীরে যখন অতিরিক্ত পানি শূন্যতা দেখা দেয় তখন অতিরিক্ত পরিশ্রম করলে মাথা ব্যথা হয়ে থাকে তাই প্রতিদিন বেশি বেশি পানি পান করবেন।

মাথা ম্যাসাজ -- মাথা ব্যথা কমানোর জন্য আরেকটা সেরা পদ্ধতি হলো মাথা ম্যাসাজ করা বৃদ্ধাঙ্গুলি এবং তর্জনী আঙ্গুল দিয়ে যেখানে মাথা ব্যথা করছে সেখানে ভালোভাবে ম্যাসাজ করুন তাহলে মাথাব্যথা কমে যাবে। 

ঠান্ডা পানিতে গোসল -- আমরা যখন অতিরিক্ত গরম অথবা অতিরিক্ত রোদের মধ্যে কাজ করি তখন মাথা ব্যাথা করে আর সেজন্য আপনি যদি ঠান্ডা পানিতে গোসল দেন তাহলে মাথা ব্যাথা অনেকটা কমে যায়।

আদা চা -- মাথা ব্যথা কমানোর জন্য খেতে পারেন আদা চা কারণ চায়ের মধ্যে রয়েছে ক্যাফেইন যা অতিরিক্ত মাথাব্যথা কমাতে সাহায্য করে।

আরো পড়ুনঃ বাতের ব্যথা কমানোর উপায় - বাতের ঔষধের নাম 

এসেনশিয়াল অয়েল -- হালকা পরিমাণ ঠান্ডা তেল হাতের মধ্যে নিয়ে যেখানে মাথা ব্যথা করছে সেখানে ম্যাসাজ করুন এবং পুরো মাথা ভালো ভাবে তেল দিন তাহলে মাথা ব্যথা ভালো হয়ে যাবে।

বিশ্রাম নেওয়া -- আমরা যখন অতিরিক্ত পরিশ্রম করি তখন মাথা ব্যথা করে তাই মাথা ব্যাথা করলে বিশ্রাম নেওয়া প্রয়োজন। সবচেয়ে ভালো হয় আপনি যদি ঘুমাতে পারেন তাহলে খুব সহজেই মাথা ব্যথা ভাল হয়ে যাবে। তবে ঘুম পুরোপুরি না হওয়া পর্যন্ত কেউ যাতে ঘুম থেকে ডেকে না তুলে তাহলে মাথা পেতে আরো বেশি হয়ে যাবে। 

আলো থেকে দূরে থাকা -- অতিরিক্ত আলোর মধ্যে থাকলে মাথা ব্যথা করে আর যখন মাথা ব্যথা করে তখন আলো সহ্য হয় না তাই অতিরিক্ত মাথা ব্যথা করলে আলো থেকে দূরে থাকুন। রুমে যদি লাইট থাকে তাহলে সেটা বন্ধ করে রাখুন।  

লবঙ্গ -- মাথা ব্যথা কমানোর জন্য লবঙ্গ অনেক কার্যকরী। হালকা পরিমাণ লবঙ্গ নিন এবং সেগুলো তাওয়ার মধ্যে দিয়ে হালকা পরিমাণ গরম করে নিন এবং তারপরে একটি শুকনো কাপড়-বা রুমালের মধ্যে লবঙ্গ নিয়ে নাকে ঘ্রান নিন তাহলে মাথা ব্যাথা আরাম হয়ে যাবে।

হাসি খুশি থাকা -- মাথা ব্যথা হলে করণীয় সবচেয়ে প্রথম কাজ হল যদি কোন বিষয় নিয়ে টেনশন করে থাকেন বা মানসিক চাপের মধ্যে থাকেন তাহলে সেগুলো ভুলে যাওয়ার চেষ্টা করুন এবং হাসিখুশি থাকার চেষ্টা করুন। অতিরিক্ত মানসিক চাপের কারণে মাথাব্যথা করে আর যদি হাসিখুশি থাকতে পারেন তাহলে মাথা ব্যাথা দূর হয়ে যাবে। 

আদা চিবিয়ে খাওয়া -- আদা কে আমরা মশলা হিসেবে ব্যবহার করে থাকি কিন্তু এই আদার রয়েছে অনেক ঔষধি গুণ তাই আপনার যদি মাথা ব্যথা করে থাকে তাহলে আদা কুচি কুচি করে কেটে সেগুলো চিবিয়ে খেতে পারেন মাথা ব্যথা কমে যাবে। 

চশমা ব্যবহার -- অনেকেই অতিরিক্ত মোবাইল টিপাটিপি করে এবং কম্পিউটারের সামনে থাকেন আর এতে করে হতে পারে মাথা ব্যথা সেজন্য যদি মাথা ব্যথা কমাতে চান তাহলে চশমা ব্যবহার করুন মোবাইল টিপার সময় এবং কম্পিউটারে কাজ করার সময়। 

মাথা ব্যথার দোয়া

এতক্ষণ আমরা জানলাম মাথা ব্যথা হলে করণীয় কি এবং মাথা ব্যথা কোন রোগের লক্ষণ কিন্তু ইসলামী উপায়ে অর্থাৎ মাথা ব্যথার দোয়া রয়েছে সেটা পাঠ করার মাধ্যমে মাথা ব্যথা ভালো করতে পারেন। মাথা ব্যথা ভালো করার জন্য পবিত্র কোরআন শরীফে একটি দোয়া রয়েছে যেটা পাঠ করলে মাথা ব্যথা কমে যায়। মাথা ব্যথার দোয়াটি হলো।

আরবি: لا أوسادا أونا آنها وا لا يونغجيفون 

মাথা ব্যথা কমানোর দোয়া বাংলা উচ্চারণ: লা ইউসাদ্দাউনা আনহা ওয়া লা ইয়ুংযিফুন। (সূরা ওয়াকিয়া, আয়াত ১৯)

মাথা ব্যথা কমানোর জন্য এই দোয়া পাঠ করবেন আর যার মাথা ব্যথা তার মাথা ডান হাত দিয়ে হালকা করে চেপে ধরবেন এবং ওপরের দোয়াটি তিনবার পাঠ করে ফুক দিবেন। তাহলে ইনশাআল্লাহ আল্লাহর রহমতে মাথা ব্যথা ভালো হয়ে যাবে। 

মাথা ভারী লাগার কারণ 

অনেক সময় আমাদের মাথা প্রচন্ড ভারী হয়ে থাকে। কিন্তু আমাদের অনেকেরই অজানা মাথা ভারী লাগার কারণ কি? মাথা ভারী লাগার বেশ কিছু কারণ রয়েছে যেমন কারো যদি সর্দি লাগে তাহলে মাথা ভারী হতে পারে, আবার ঠান্ডা লাগলে মাথা ভারী হয়ে থাকে, আবার মাথা ভারী লাগার আরেকটি কারণ হলো আপনি যদি সারাদিন কোন কাজ না করে শুয়ে থাকেন তাহলে সেই কারণে মাথা ভারী লাগে। 

আরো পড়ুনঃ পেট ব্যথা কমানোর উপায় - পেট ব্যথার কারণ কি 

পর্যাপ্ত ঘুম না হওয়ার কারণে মাথা ভারী লাগে, এছাড়াও অনেকের মাইগ্রেনের সমস্যা রয়েছে সেজন্য মাইগ্রেনের সমস্যার কারণে মাথা ভারী হয়ে থাকে। মাথা ভারী হওয়ার আরেকটি কারণ হলো অতিরিক্ত ঘুমানো ঘুম যেমন আমাদের শরীরের জন্য প্রয়োজন তেমন অতিরিক্ত ঘুমানোর ফলেও হতে পারে মাথা ভারী। এখানে যেগুলো কারণ বললাম এগুলোর কারণেই মূলত মাথা ভারী হয়ে থাকে। তাই আপনার কোন কারণে মাথা ভারী হচ্ছে সেটা বুঝে সেই কাজটি সম্পর্কে সতর্ক হোন। 

তীব্র মাথা ব্যাথার ঔষধ 

মাথা ব্যথা কোন রোগের লক্ষণ জানতে পেরেছেন এবার জানবো তীব্র মাথা ব্যাথার ঔষধ এর নাম গুলো। বর্তমানে বাজারে অনেক মাথাব্যথার ঔষধ রয়েছে। যেগুলো বয়স অনুযায়ী এবং মাথা ব্যথার ধরন অনুযায়ী বিভিন্ন জনের বিভিন্ন রকম ঔষধ খেতে হয়। মাথা ব্যথার কয়েকটি ওষুধের নাম নিচে দেওয়া হলো।

  • Tufnil
  • Tolfi
  • Napa extra
  • Cafenol
  • Fap Plus
  • Namitol
  • Anilic
  • Migratol
  • Ace Plus
  • Feverex
  • Tolmic
  • Mygan

মাথাব্যথা ভালো করার জন্য এই সকল ঔষধ সেবন করা হয়ে থাকে। এখানে শুধু আপনাদের জানানোর উদ্দেশ্যে ওষুধের নাম গুলো বলা হয়েছে এই ঔষধ গুলো খাওয়ার আগে অবশ্যই আপনার চিকিৎসকের  পরামর্শ গ্রহণ করতে হবে। ইন্টারনেটে যে কোন ঔষধের নাম দেখে তা নিজ থেকে খাওয়ার চেষ্টা করবেন না কারণ ঔষধের অনেক পার্শ্বপ্রতিক্রিয়া থাকে যা আপনার ক্ষতির কারণ হতে পারে। তাই ওষুধ খাওয়ার আগে অবশ্যই ডাক্তারের থেকে ঔষধ সম্পর্কে ভালোভাবে জেনে নেবেন। 

ঠান্ডায় মাথা ব্যথা হলে করণীয় 

ঠান্ডার সময় অনেকেরই মাথা ব্যাথা করে থাকে। তাই কারো যদি ঠাণ্ডার সময় মাথা ব্যথা করে তাহলে করণীয় হলো চা খেতে পারেন। আর যখন অতিরিক্ত ঠান্ডা লাগে তখন সেই কারণে মাথা ব্যথা করতে পারে তাই মাথা কিছু দিয়ে ঢেকে রাখার চেষ্টা করবেন। শরীর যখন অতিরিক্ত দুর্বল হয়ে যায় তখন শীতের সময় মাথা ব্যথা করে থাকে তাই শীতের সময় মাথা ব্যথা করলে বেশি বেশি পুষ্টিকর খাবার খাবেন তাহলে মাথাব্যথা ভালো হয়ে যাবে ইনশাআল্লাহ। 

আমাদের গুগল নিউজ ফলো করতে এখানে ক্লিক করুন তারপরে ফলো করুন 

তারপরেও যদি মাথাব্যথা ভালো না হয় তাহলে চিকিৎসকের পরামর্শ গ্রহণ করতে হবে এবং চিকিৎসা গ্রহণ করতে হবে। নিজ থেকে মাথা ব্যথার কোন ঔষধ কিনে খাবেন না কারণ সব ধরনের ওষুধের মধ্যেই পার্শ্ব প্রতিক্রিয়া থাকে যা পরবর্তীতে হতে পারে ক্ষতির কারণ। অনেকেই প্যারাসিটামল ওষুধ সেবন করে থাকেন সেটাও ডাক্তারের পরামর্শ ছাড়া সেবন করা যাবে না। আশা করছি আজকের আর্টিকেল থেকে মাথা ব্যথা হলে করণীয় কি এবং  মাথা ব্যথা কোন রোগের লক্ষণ সহ এ সম্পর্কিত সকল বিষয়ে ভালোভাবে জানতে পেরেছেন। 

মাথা ব্যথা হলে করণীয় - মাথা ব্যথা কোন রোগের লক্ষণ: শেষ কথা 

মাথা ব্যথার কারণ মাথা ব্যথা কোন রোগের লক্ষণ মাথা ব্যথা হলে করণীয় মাথা ব্যথা কমানোর উপায় মাথা ব্যথার দোয়া মাথা ভারী লাগার কারণ তীব্র মাথা ব্যাথার ঔষধ ঠান্ডায় মাথা ব্যথা হলে করণীয় কি এ সকল বিষয়ে আজকের আর্টিকেলে আলোচনা করা হয়েছে আশা করছি আপনারা এই সকল বিষয়ে ভালোভাবে জানতে পেরেছেন। 

তারপরেও যদি এই বিষয়ে আরো কিছু জানার থাকে তাহলে কমেন্টের মাধ্যমে আমাদের জানাতে পারেন। এবং এরকম আরো তথ্যমূলক আর্টিকেল পেতে আমাদের JONOPRIYO BLOG ওয়েবসাইট নিয়মিত ফলো করুন। এতক্ষণ আমাদের সাথে থাকার জন্য অসংখ্য ধন্যবাদ। 

এই পোস্টটি পরিচিতদের সাথে শেয়ার করুন

পূর্বের পোস্ট দেখুন পরবর্তী পোস্ট দেখুন