পেট ব্যথা কমানোর উপায় - পেট ব্যথার কারণ কি

 

প্রিয় বন্ধুরা আজকে আপনাদের জানাবো পেট ব্যথার কারণ কি এবং পেট ব্যথা কমানোর উপায় সম্পর্কে। আপনি যদি পেট ব্যথার সমস্যায় ভুগে থাকেন তাহলে এখান থেকে জেনে নিতে পারবেন পেট ব্যথা কমানোর উপায় তাহলে চলুন আজকের এই আর্টিকেল থেকে জেনে নেওয়া যাক পেট ব্যথা কমানোর উপায় সহ এই সম্পর্কিত আরো অনেক কিছু বিষয়ে। 
পেট ব্যথা কমানোর উপায়
পেট ব্যথার কারণ কি পেট ব্যথা কমানোর উপায় হঠাৎ হঠাৎ পেট ব্যথার কারণ পেটের মাঝখানে ব্যাথার কারণ তল পেট ব্যথার কারণ পেটের ডান পাশে ব্যথার কারণ পেটের বাম পাশে ব্যথার কারণ খাওয়ার পর পেট ব্যথার কারণ এবং পেট ব্যথা কমানোর উপায় সম্পর্কে জানতে আজকের পুরো পোস্টটি মনোযোগ সহকারে পড়ুন।

পোস্ট সূচিপত্রঃ পেট ব্যথা কমানোর উপায় - পেট ব্যথার কারণ কি  

পেট ব্যথার কারণ কি 

পেট ব্যথার নানা রকম কারণ হতে পারে যেমন গ্যাস বদহজম এসিডিটি কোষ্ঠকাঠিন্য  ডায়রিয়া অথবা ফুড পয়জনিং পিত্ত থলিতে পাথর এপেন্ডিসাইটিস কিডনিতে পাথর এসব কারণে সাধারণত পেট ব্যথা হয়ে থাকে তবে গ্যাস বদহজম এসিডিটি এগুলোর কারণে পেট ব্যথা হলে সেটা তাড়াতাড়ি ভালো করা যায় তেমন কোনো চিন্তার কারণ থাকে না আর পিত্তথলিতে পাথর এপেন্ডিসাইড কিডনিতে পাথর এসব কারণে পেট ব্যথা হলে বিষয়টা অনেক চিন্তার সেজন্য বেশি সময় ধরে খুব বেশি পেট ব্যথা থাকলে অবশ্যই চিকিৎসকের পরামর্শ নেওয়া উচিত।

হঠাৎ হঠাৎ পেট ব্যথার কারণ

হঠাৎ হঠাৎ পেট ব্যথার কারণ হলো না খেয়ে থাকার জন্য অনেক সময়ই পেট ব্যথা করে থাকে আবার চর্বি জাতীয় খাবার খাওয়ার পরে তা যদি হজম হতে না পারে তাহলে পেট ব্যথা করে থাকে তবে এসব কারণ বাদে ও হঠাৎ হঠাৎ পেট ব্যথা হয়ে থাকে প্রথম প্রথম কেউ সেভাবে গুরুত্ব দেয় না এটা মোটেও ঠিক না

আরো পড়ুনঃ শরীরের রক্ত বৃদ্ধির উপায় - কোন সবজি খেলে রক্ত হয়

মাঝে মাঝে এবং বেশ কিছুদিন ধরে যদি পেট ব্যথা হয়ে থাকে তাহলে অবশ্যই ডাক্তারের পরামর্শ অনুযায়ী চিকিৎসা নিতে হবে নয়তো এটা অনেক খারাপ পর্যায়ে চলে যেতে পারে যার কারণে মৃত্যু ও হতে পারে

পেটের মাঝখানে ব্যথার কারণ

পেটের মাঝখানে একটি বড় অংশের অগ্ন্যাশয় এর অবস্থা রয়েছে ভারী চর্বি জাতীয় খাবার খাওয়ার পরে যদি পেটের মাঝখানে বা পিছনে ছড়িয়ে পড়ে  তাহলে এই ব্যথা অগ্নাশয় এর  একটি বড় অংশ হিসেবে ধরে নিতে পারেন তারপরে বুকের সাথে যদি পেটের মাঝখানে জ্বালা পোড়া করে তাহলে তা বদহজম বা গ্যাসট্রাইটিস এর কারণে হতে পারে তারপরে আসে খাবার খাওয়ার পর যদি মাঝরাতে পেটের মাঝখানে ব্যথা হয় তাহলে তা আলসারের কারণ হতে পারে।

তল পেট ব্যথার কারণ

আরো অনেক ব্যাথার মত তলপেটের ব্যথা কেউ আমরা সবসময় এড়িয়ে যায় কিন্তু এটা মোটেও ঠিক নয় অনেক কারণে তলপেটে ব্যথা হয়ে  থাকে যেমন এপেন্ডিসাইটিস এর কারণে অনেক সময় তলপেটে ব্যথা হয়ে থাকে সেই সাথে জ্বর বমি বমি ভাব এবং প্রস্রাবের সাথে জ্বালাপোড়া হয়ে থাকে। মূত্রনালীতে ব্যাক্টেরিয়ার সংক্রমনের কারনেও তলপেটে ব্যথা হয়ে থাকে তখন মনে হয় মূত্র ত্যাগ করলে স্বস্তি পাওয়া যাবে কিন্তু মূত্র ত্যাগ করার পরেও স্বস্তি পাওয়া যায় না তখন ব্যথার সঙ্গে সঙ্গে রোগী মানসিক অসুস্থতাই ভুগতে থাকে।

আরো পড়ুনঃ বাতের ব্যথা কমানোর উপায় - বাতের ওষুধের নাম

মূত্রনালীতে পাথর হলে তলপেটে ব্যথা দেখা দেয় এবং প্রসাবের রং বদলে যাই সেইসাথে রক্তক্ষরণ হয়ে থাকে এরপরে মূত্র থলিতে ক্যান্সার হলে এরকম ব্যথা দেখা দেয় যা সবচেয়ে বেশি ভয়ঙ্কর মূত্র থলিতে ক্যান্সারের রোগীর বেশিভাগ সময় পেটে চাপ হয়ে থাকে এবং প্রস্রাব করতে চাইলেও প্রস্রাব করতে পারেন না এবং ঐ সময় পেটে অনেক জ্বালা-পোড়া হয়ে থাকে।

পেটের ডান পাশে ব্যথার কারণ

অনেক কারণেই পেটের ডান পাশে ব্যথা হয়ে থাকে অনেক সময় পেটের ডান পাশে ব্যথা হয় আবার কিছুক্ষণ পরে এমনিতেই সেরে যায় এরকম হলে আতঙ্কিত হবেন না পেটের ডান পাশে ব্যথার একটা কারণ হল বিক্কে পাথর তল পেটের দুই পাশে বিক্ক আছে বিক্কে  পাথর হলে পেটের ডান পাশে ব্যথা করে থাকে।

পেটের ডান পাশে এপেন্ডিসাইটিস এর কারণেও ব্যথা হয়ে থাকে অ্যাপেন্ডিক্স হলো আঙুলের মতো আকৃতির একটি থলে যা পেটের ডান দিক থেকে শুরু হয়ে থাকে আর  এপেন্ডিসাইটিস এর ব্যথা অনেক অসহ্যকর হয়ে থাকে সেজন্য পেটের ডান পাশে ব্যথা করলে দ্রুত চিকিৎসা নেয়া প্রয়োজন।

পেটের বাম পাশে ব্যথার কারণ

পেটের বাম পাশে পাকস্থলীর একটি বড় অংশ অবস্থিত তাই পেটের বাম পাশে ব্যথা হলে ধরে নেয়া যেতে পারে তা পাকস্থলীর সমস্যা এখানে পাকস্থলীর সমস্যার কারণে অস্বস্তিকর ব্যথা বা বমি বমি ভাব বা বমি হয়ে থাকে আর খালি পেটে থাকলে যদি পেটের বাম পাশে ব্যথা হয় তাহলে ধরে নিতে পারেন আপনি আলসারে আক্রান্ত এমন লক্ষণ দেখা দিলে তা কখনোই অবহেলা করবেন না নয়তো অনেক ক্ষতি হয়ে যেতে পারে।

খাওয়ার পর পেট ব্যথার কারণ

অনেক সময় সারাদিন না খাওয়ার ফলে পেটে ব্যথা হয়ে থাকে আবার অনেক সময় খাবার পরে পেটে ব্যথা হয়ে থাকে  সে বিষয়গুলো আপনার এড়িয়ে চলা উচিত কয়েকটি কারণে খাওয়ার পরে পেট ব্যথা হয়ে থাকে যেমন,

 অতিরিক্ত খাওয়া

আমাদের সবারই খাওয়ার একটি নির্দিষ্ট পরিমান মাপ আছে কিন্তু সেই জিনিসটা না মেনে অনেকেই অতিরিক্ত বেশি খেয়ে ফেলে আর তার ফলে খাওয়ার পরে পেট ব্যথা হয়ে থাকে।

হজমে সমস্যা

খাওয়ার পরে যদি সেই খাবার টা ঠিকঠাক মত হজম না হয় তখন পেটের ব্যাথা শুরু হয়ে যায় চর্বি জাতীয় খাবার মসলা জাতীয় খাবার অ্যালকোহল এইসব খাবার খাওয়ার ফলে হজমে সমস্যা হয়ে থাকে।

খুব তাড়াতাড়ি খাওয়া

খাওয়ার পরে পেট ব্যথার আরেকটি কারণ হলো খুব তাড়াতাড়ি খাবার খাওয়া তাড়াতাড়ি খাবার খাওয়ার সময় অতিরিক্ত বাতাস পেটের ভিতরে চলে যায় এবং তার পরে পেট ফুলে এবং ফেঁপে যায় এবং পেট ব্যথা শুরু করে।

পেট ব্যথা কমানোর উপায়

এবার আমরা জানবো পেট ব্যথা কমানোর উপায় সম্পর্কে।মাঝে মাঝে অনেকেরই পেট ব্যথা হয়ে থাকে অনেক কারণে অনেক সময়ই পেট ব্যথা এমনিতেই ভালো হয়ে যায় কিন্তু কিছু কিছু সময় অনেক বেশি ব্যথা করে এবং তা অনেক সময় ধরে হয়ে থাকে কমতে চাই না অনেক কষ্ট হয় তাই এইরকম পেট ব্যথা হলে তা একদমই অবহেলা করা ঠিক নয় এতে করে অনেক বড় ক্ষতি হয়ে যেতে পারে। পেট ব্যথা কমানোর কয়েকটি উপায় হলো,

খুব বেশি পেট ব্যথা করলে আদা আদা কুচি কুচি করে চিবিয়ে খেতে পারেন কিংবা একটু গরম পানি করে  তার ভেতর আদা এবং কিছুটা মধু দিয়ে খেতে পারেন এতে করে পেটে ব্যথা কমে যাবে। এবং একটু গরম পানির সাথে হলুদের গুঁড়ো ভালোভাবে মিশিয়ে খেতে পারেন এতেও পেট ব্যথা কমে যাবে।

আরো পড়ুনঃ মুখের কালো দাগ দূর করার উপায় - মুখের কালো দাগ দূর করার ক্রিম

পেট ব্যথা কমানোর আরেকটা উপায় হলো ভাত পেট ব্যথা করলে তরকারি ছাড়া ভাত একটু নরম করে খেতে পারেন এতে করে গ্যাস্টিকের কোন সমস্যা হয় না এবং পেটের ব্যথা কমাতে সাহায্য করে। পেটে ব্যথা কমাতে হালকা হালকা গরম পানি খেতে পারেন এবং পেটে একটু  গরম তাপ দিতে পারেন হিটিং প্যাড এর মাধ্যমে।

পেট ব্যথা কমাতে আপেল এবং কলা খেতে পারেন এতে প্রচুর পরিমাণে ফাইবার থাকে সেজন্য এগুলো পেট ব্যথা কমাতে সাহায্য করে। পেট ব্যথা কমাতে পুদিনা পাতার রস খেতে পারেন আর চর্বি এবং ঝাল জাতীয় খাবার খুব  কম খাবেন নিয়মিত হাটাহাটি এবং ব্যায়াম করতে হবে এতে করে শরীর সুস্থ থাকবে এবং পেট ব্যথা হবে না।

পেট ব্যথা কমানোর উপায় - পেট ব্যথার কারণ কিঃ শেষ কথা

আজকের আর্টিকেল এ পেট ব্যথার কারণ কি পেট ব্যথা কমানোর উপায় সম্পর্কে একটা ধারণা দেওয়ার চেষ্টা করেছি এই আর্টিকেল পড়ে আপনারা পেট ব্যথার কারণ অনুমান করতে পারেন তবে শেষে একটা কথা বলতে চাই এরকম পেট ব্যথা সমস্যা হলে বিশেষজ্ঞ চিকিৎসকের পরামর্শ অনুযায়ী যেকোনো সিদ্ধান্ত নিবেন।  

আজকের আর্টিকেল পড়ার পরে আপনার যদি আরো কিছু জানার থাকে তাহলে নিচে কমেন্ট বক্সে কমেন্ট করে জানাতে পারেন এবং এরকম আরো নতুন নতুন টিপস পেতে আমাদের ওয়েবসাইট নিয়মিত ভিজিট করুন ধন্যবাদ। 

এই পোস্টটি পরিচিতদের সাথে শেয়ার করুন

পূর্বের পোস্ট দেখুন পরবর্তী পোস্ট দেখুন