ক্যান্সারের লক্ষণ - ব্লাড ক্যান্সারের লক্ষণ

আসসালামু আলাইকুম প্রিয় পাঠক ও পাঠিকা ক্যান্সারের লক্ষণ এবং ব্লাড ক্যান্সারের লক্ষণ কি তা আজকের আর্টিকেল এর মাধ্যমে আপনাদের জানাবো। ক্যান্সার হওয়ার আগে বা ক্যান্সার হলে ক্যান্সারের লক্ষণ রয়েছে সেগুলো দেখা দিয়ে থাকে কিন্তু আমরা জানি না যে সেই লক্ষণ গুলো কি।এতে করে আমাদের ক্যান্সার অনেক বেশি হয়ে যায় পরবর্তীতে তা ভালো করা সম্ভব হয় না তাই চলুন জেনে নেওয়া যাক ক্যান্সারের লক্ষণ গুলো কি কি?
ক্যান্সারের লক্ষণ

ক্যান্সারের লক্ষণ ব্লাড ক্যান্সারের লক্ষণ বেস্ট ক্যান্সারের লক্ষণ নাকের ক্যান্সারের লক্ষণ সহ সকল ধরনের ক্যান্সার এর লক্ষণ কি কি তা আজকের আর্টিকেলে আপনারা জানতে পারবেন তাই সকল ক্যান্সারের লক্ষণ সম্পর্কে জানতে আর্টিকেলটি শেষ পর্যন্ত পড়তে থাকুন। 

পোস্ট সূচিপত্রঃ ক্যান্সারের লক্ষণ - ব্লাড ক্যান্সারের লক্ষণ 

ক্যান্সারের লক্ষণ

মানুষের অনেক রোগ হয়ে থাকে কিন্তু সবচেয়ে কঠিন এবং সবচেয়ে খারাপ একটি রোগ হলো ক্যান্সার কারণ ক্যান্সারের ফলে মানুষের মৃত্যু হয়ে থাকে। অনেকের ক্যান্সার হয়ে থাকে কিন্তু ক্যান্সারের লক্ষণ গুলো না জানার কারণে সঠিক সময় বুঝতে পারে না যে ক্যান্সার হয়েছে কিনা। কিন্তু আপনি যদি আগে থেকে জেনে থাকেন ক্যান্সারের লক্ষণগুলো তাহলে বুঝতে পারবেন যে আপনার ক্যান্সার হয়েছে কিনা এবং অতি দ্রুত চিকিৎসা গ্রহণ করতে পারবেন এবং দ্রুত চিকিৎসা গ্রহণ করলে ভালো হয়ে যাবে। তাই ক্যান্সারের লক্ষণ গুলো জেনে নিন। 

  • ওজন কমে যাওয়া
  • ঘন ঘন জ্বর
  • অতিরিক্ত ব্যথা করা
  • অতিরিক্ত ক্লান্ত বোধ করা
  • ত্বকের পরিবর্তন
  • দীর্ঘ সময় কাশি
  • রক্তক্ষরণ
  • খাবার খেতে ভালো না লাগা
  • মল মূত্র ত্যাগের অভ্যাসের পরিবর্তন

ওজন কমে যাওয়াঃ যদি দেখেন আপনার কোন কারণ ছাড়াই হঠাৎ করে অতিরিক্ত ওজন কমে গেছে তাহলে এটি হতে পারে ক্যান্সারের কোন লক্ষণ। কারণ হঠাৎ করে ওজন কমে যাওয়া ক্যান্সারের অন্যতম একটি উপসর্গ। 

ঘন ঘন জ্বরঃ যদি আপনার কোন অসুখ ছাড়া ঘন ঘন জ্বর হয়ে থাকে এবং তা ভালো হতে না চায় তাহলে এটা একটি চিন্তার বিষয় কারণ অতিরিক্ত ঘন ঘন জ্বর হওয়া ক্যান্সারের অন্যতম একটি লক্ষণ। তাই এমন লক্ষণ দেখা দিলে দ্রুত চিকিৎসকের পরামর্শ নিন। 

অতিরিক্ত ব্যথা করাঃ যদি আপনার কোন আঘাত ছাড়া বা কোন কাঁটা ছেঁড়া ছাড়া আপনার শরীরের কোন অংশে অনেকদিন ধরে ব্যথা করে এবং ওষুধ খাওয়ার পরেও সেই ব্যথাটি যদি ভালো না হয় তাহলে এটি ক্যান্সারের একটি অন্যতম লক্ষণ। তাই এরকম লক্ষণ দেখা দিলে চিকিৎসকের পরামর্শ অনুযায়ী চিকিৎসা গ্রহণ করুন। 

আরো পড়ুনঃ সাত দিনে মোটা হওয়ার উপায় - মোটা হওয়ার ওষুধের নাম 

অতিরিক্ত ক্লান্ত বোধ করাঃ যদি আপনি কোন কারণ ছাড়াই অতিরিক্ত ক্লান্ত বোধ করেন আবার একটু কাজ করলেই অতিরিক্ত ক্লান্ত হয়ে যান তাহলে এটিও হতে পারে ক্যান্সারের অন্যতম একটি লক্ষণ। এই লক্ষণটি যদি আপনার ভিতরে কিছুদিন ধরে দেখতে পান তাহলে অবহেলা করা ঠিক হবে না।

ত্বকের পরিবর্তনঃ ত্বকের যদি অস্বাভাবিক পরিবর্তন দেখতে পান তাহলে এটি একটি চিন্তার বিষয় কারণ আপনার ত্বকে বিভিন্ন রকম অস্বাভাবিক পরিবর্তন দেখা দিলে এটি ক্যান্সারের অন্যতম একটি লক্ষণ। তাই আপনার ত্বকে যদি অস্বাভাবিক কোনো পরিবর্তন দেখতে পান তাহলে চিকিৎসকের পরামর্শ অনুযায়ী চিকিৎসা গ্রহণ করার প্রয়োজন।

দীর্ঘ সময় কাশিঃ আমাদের যখন কাশি হয় তখন আমরা কাশতে থাকি কিন্তু এই কাশি যদি দীর্ঘ সময় ধরে থাকে এবং বিভিন্ন রকম ঔষধ খাওয়ার পরেও ভালো না হয় তাহলে এটিও হতে পারে ক্যান্সারের একটি অন্যতম লক্ষণ। তাই যদি আপনার দীর্ঘ সময় ধরে কাশি থাকে তাহলে ক্যান্সার হয়েছে কিনা পরীক্ষা করা প্রয়োজন। 

রক্তক্ষরণঃ কোন কারণ ছাড়াই যদি শরীরের বিভিন্ন জায়গা থেকে রক্তক্ষরণ হয়ে থাকে তাহলে এটিও হতে পারে ক্যান্সারের একটি অন্যতম কারণ। যখন ক্যান্সার হয় তখন শরীরের বিভিন্ন জায়গা থেকে রক্তক্ষরণ হতে থাকে তাই এমনটি হলে অবহেলা করা যাবে না। 

খাবার খেতে ভালো না লাগাঃ যদি আপনার খাবারে পরিবর্তন আসে অর্থাৎ হঠাৎ করে যদি আপনার খাবারের প্রতি রুচি চলে যায় খাবার খেতে ভালো না লাগে এবং এটা যদি অনেক দিন ধরে হতে থাকে তাহলে আপনার ডাক্তারের কাছে যাওয়া উচিত এবং পরীক্ষা করে দেখা উচিত ক্যান্সার হয়েছে কিনা।

মল মূত্র ত্যাগের অভ্যাসের পরিবর্তনঃ মল মূত্র ত্যাগের অভ্যাসে পরিবর্তন ক্যান্সারের অন্যতম একটি লক্ষণ। যদি হঠাৎ করে আপনার মল মূত্র ত্যাগের বিভিন্ন রকম পরিবর্তন দেখতে পান তাহলে এটা অবহেলা করা যাবে না চিকিৎসকের সাথে কথা বলে দেখতে হবে কেন এমনটি হচ্ছে। 

ব্লাড ক্যান্সারের লক্ষণ

কারো যদি ব্লাড ক্যান্সার হয়ে থাকে তাহলে ব্লাড ক্যান্সারের লক্ষণ রয়েছে সে লক্ষণ গুলো দেখা দিলে বুঝতে পারবেন যে ব্লাড ক্যান্সার হয়েছে কিনা ব্লাড ক্যান্সারের লক্ষণ সম্পর্কে সবার জেনে রাখা প্রয়োজন কারণ। ব্লাড ক্যান্সার অনেক মারাত্মক একটি রোগ। ব্লাড ক্যান্সারের লক্ষণ গুলো কি কি তা জেনে রাখুন। 

  • ত্বক সাদা হয়ে যাওয়া
  • কাঁপুনি দিয়ে জ্বর
  • ওজন কমে যাওয়া
  • নাক দিয়ে রক্ত পড়া
  • বুকে ব্যথা করা
  • লিভার বড় হয়ে যাওয়া
  • শ্বাসকষ্ট হওয়া

ত্বক সাদা হয়ে যাওয়াঃ যদি লক্ষ্য করেন যে আপনার ত্বক আগের থেকে ফ্যাকাশে বা সাদা হয়ে যাচ্ছে তাহলে এটি ব্লাড ক্যান্সারের অন্যতম একটি লক্ষণ। ব্লাড ক্যান্সার হলে শরীরের রক্ত থাকে না তখন ত্বক সাদা হয়ে যায়। 

কাঁপুনি দিয়ে জ্বরঃ যদি হঠাৎ করে আপনার কাপুনি দিয়ে জ্বর আসে এবং এটি যদি প্রায় প্রায় হয়ে থাকে তাহলে এটিও হতে পারে ব্লাড ক্যান্সারের লক্ষণ। তাই এমনটি হলে চিকিৎসকের পরামর্শ অনুযায়ী চিকিৎসা গ্রহণ করা প্রয়োজন। 

ওজন কমে যাওয়াঃ যদি হঠাৎ করে আপনার ওজন অতিরিক্ত কমে যায় তাহলে এটিও হতে পারে ব্লাড ক্যান্সারের একটি লক্ষণ। তাই যদি দেখেন আপনার অতিরিক্ত ওজন হঠাৎ করে কমে যাচ্ছে তাহলে চিকিৎসকের কাছে যাওয়া প্রয়োজন। 

আরো পড়ুনঃ পাতলা পায়খানা হলে করণীয় কি - পাতলা পায়খানা হলে ঔষধ

নাক দিয়ে রক্ত পড়াঃ ব্লাড ক্যান্সার হলে নাক দিয়ে রক্ত পড়ে থাকে। তাই যদি দেখেন আপনার নাক দিয়ে মাঝে মাঝে রক্ত পড়ছে কোনো কারণ ছাড়াই তাহলে এটি অবহেলা করা যাবে না ব্লাড ক্যান্সার হয়েছে কিনা সেটার পরীক্ষা করাতে হবে। 

বুকে ব্যথা করাঃ ব্লাড ক্যান্সারের লক্ষণ এর ভেতর আরেকটি হলো বুকে ব্যথা করা। যদি আপনি লক্ষ্য করেন যে অনেকদিন ধরে আপনার বুকে ব্যথা করছে কোনো কারণ ছাড়াই তাহলে এটা অবহেলা করা যাবে না। 

লিভার বড় হয়ে যাওয়াঃ ব্লাড ক্যান্সারের লক্ষণ এর ভেতর আরো একটি অন্যতম লক্ষণ হল লিভার বড় হয়ে যাওয়া। যদি আপনি বুঝতে পারেন যে আপনার লিভার আগের তুলনায় অনেক বড় হয়ে যাচ্ছে তাহলে আপনার অতি দ্রুত এটার চিকিৎসা গ্রহণ করা প্রয়োজন। 

শ্বাসকষ্ট হওয়াঃ ব্লাড ক্যান্সারের লক্ষণ এর ভেতর আরো একটি লক্ষণ হলো শ্বাসকষ্ট হওয়া যদি আপনি দেখেন আগের তুলনায় আপনার শ্বাস নিতে কষ্ট হচ্ছে অর্থাৎ শ্বাসকষ্ট হচ্ছে তাহলে এটা নিয়ে চিন্তা করার বিষয় রয়েছে এবং অতি দ্রুত এটা ভালো করার ব্যবস্থা করতে হবে। 

মাথা ঘোরাঃ যদি কোন কারণ ছাড়াই আপনার হঠাৎ হঠাৎ করে মাথা ঘুরে অথবা বেশিরভাগ সময় মাথা ঘুরে তাহলে এটিও হতে পারে আপনার ব্লাড ক্যান্সারের একটি অন্যতম লক্ষণ। ব্লাড ক্যান্সার হলে মাথা ঘোরার লক্ষণ টা বেশি দেখা দিয়ে থাকে তাই এমনটি হলে চিকিৎসককে জানানো প্রয়োজন। আশা করছি জানতে পারলেন ব্লাড ক্যান্সারের লক্ষণ গুলো। 

বেস্ট ক্যান্সারের লক্ষণ

ক্যান্সার একটি মরণব্যাধি রোগ এবং এই ক্যান্সার বিভিন্ন রকমের হয়ে থাকে যেমন একটি হলো বেস্ট ক্যান্সার। যখন বেস্ট ক্যান্সার হয় তখন বেস্ট ক্যান্সারের লক্ষণ কয়েকটি দেখা দিয়ে থাকে। কিন্তু অনেক মেয়েরাই হয়তো জানে না যে বেস্ট ক্যান্সারের লক্ষণ গুলো কি কি? সেজন্য এখন তাদের জন্য বলব বেস্ট ক্যান্সারের লক্ষণ গুলো কি কি? 

  • স্তন ফুলে যাওয়া
  • স্তনে চাকা বা পিন্ড দেখা দিবে
  • নিপল দিয়ে রস নির্গত হওয়া
  • নিপলের আশেপাশে ফুসকুড়ি বা চুলকানি হওয়া
  • স্তনে দীর্ঘদিন ব্যথা হওয়া
  • স্তনের ত্বকের পরিবর্তন হওয়া
  • স্তনের আকার পরিবর্তন

স্তন ফুলে যাওয়াঃ যদি দেখেন আপনার স্তন আগের তুলনায় এবং কোন কারণ ছাড়াই অতিরিক্ত ফুলে যাচ্ছে তাহলে এটি হতে পারে বেস্ট ক্যান্সারের একটি অন্যতম কারণ। বেস্ট ক্যান্সার হলে স্তন ফুলে যায়।

স্তনে চাকা বা পিন্ড দেখা দিবেঃ বেস্ট ক্যান্সার আরো একটি লক্ষণ হলো স্তনে চাকা বা পিন্ড দেখা দিবে। যদি দেখেন আপনার স্তনে চাকা বা পিন্ড এর মত কিছু দেখা যাচ্ছে তাহলে ধরে নিতে পারেন এটা বেস্ট ক্যান্সারের কারণে। 

নিপল দিয়ে রস নির্গত হওয়াঃ যদি আপনার নিপল দিয়ে রস নির্গত হয় এবং এটি অনেক দিন ধরে হতে থাকে তাহলে এটিও হতে পারে বেস্ট ক্যান্সার অন্যতম একটি কারণ বা লক্ষণ। 

নিপলের আশেপাশে ফুসকুড়ি বা চুলকানি হওয়াঃ যদি লক্ষ্য করেন যে আপনার নিপলের আশেপাশে ফুসকুড়ি হয়েছে বা চুলকাচ্ছে তাহলে অবহেলা করা যাবে না কারণ এমনটি হয় বেস্ট ক্যান্সার হলে। 

স্তনে দীর্ঘদিন ব্যথা হওয়াঃ আপনার স্তনে যদি ব্যথা হয়ে থাকে এবং ব্যথাটি দীর্ঘদিন হয়ে থাকে তাহলে এটা হতে পারে বেস্ট ক্যান্সারের একটি লক্ষণ। বেস্ট ক্যান্সার হলে স্তনে ব্যথা হয়ে থাকে। 

স্তনের ত্বকের পরিবর্তন হওয়াঃ স্তনের ত্বকের পরিবর্তন হয়ে থাকে যদি বেস্ট ক্যান্সার হয়। যেমন কারো স্তনের যদি রং পরিবর্তন হয় যেমন স্তন কালচে রঙের হয়ে যায় তাহলে একজন ভালো চিকিৎসকের সাথে পরামর্শ করে চিকিৎসা গ্রহণ করা প্রয়োজন বা পরীক্ষা করে দেখা প্রয়োজন। 

স্তনের আকার পরিবর্তনঃ যদি হঠাৎ করে কারো স্তনের আকার পরিবর্তন হয়ে যায়। তাহলে ধরে নিতে পারেন এটি একটি বেস্ট ক্যান্সারের লক্ষণ। তাই কারো যদি হঠাৎ স্তনের আকার পরিবর্তন হয় তাহলে তা চিকিৎসককে জানানো প্রয়োজন এবং সঠিক চিকিৎসা নেওয়া প্রয়োজন। 

গলায় ক্যান্সারের লক্ষণ

কারো যদি গলায় ক্যান্সার হয় তাহলে গলায় ক্যান্সারের কিছু লক্ষণ রয়েছে সেগুলো দেখা দিবে কিন্তু আপনি হয়তো জানেন না গলায় ক্যান্সারের লক্ষণ কি আর সেজন্য হয়তো বুঝতে পারবেন না যে আপনার গলায় ক্যান্সার হয়েছে কিনা এই লক্ষণ গুলো দেখা দিলে। আর আপনি যদি আগে থেকে জেনে থাকেন যে গলায় ক্যান্সারের লক্ষণ গুলো কি তাহলে বুঝতে পারবেন খুব সহজে এবং সেটা দ্রুত সমাধান করতে পারবেন। 

আরো পড়ুনঃ মাসিক না হলে কি বাচ্চা হওয়ার সম্ভাবনা থাকে - মাসিক না হলে ঔষধ

গলায় ক্যান্সারের লক্ষণ হল শ্বাস-প্রশ্বাস নিতে অতিরিক্ত কষ্ট হওয়া, কোন খাবার খেতে গেলে গলায় প্রচন্ড ব্যথা করা, আবার এমনি সময় গলায় ব্যথা করা, আবার যদি কারো ওজন দ্রুত এবং হঠাৎ করে কমে যায় তাহলে এটিও গলায় ক্যান্সারের একটি লক্ষণ, হঠাৎ করে কাশি উঠা এবং কাশির সাথে রক্ত বের হওয়া গলায় ক্যান্সারের একটি লক্ষণ, এছাড়াও গলায় আরো বিভিন্ন রকম সমস্যা দেখা দিয়ে থাকে যদি গলার ক্যান্সার হয়। 

পেটের ক্যান্সারের লক্ষণ

পেটের ক্যান্সারের লক্ষণ গুলো হলো অতিরিক্ত পেট ব্যথা করা, বমি হওয়া, বুক জ্বালা করা, হঠাৎ করে অতিরিক্ত ওজন কমে যাওয়া, পেটের ক্যান্সারের আরেকটি অন্যতম লক্ষণ হল যদি কারো জন্ডিস হয় এবং এটা অনেকদিন ধরে থাকে তাহলে বুঝে নিতে হবে যে এটি পেটের ক্যান্সারের কারণ হতে পারে।  

আবার খাবার খাওয়ার সময় যদি খাবার গিলতে কষ্ট হয় তাহলে এটিও হতে পারে পেটের ক্যান্সারের অন্যতম একটি লক্ষণ। মূলত এই লক্ষণ গুলোই দেখলে আপনি বুঝতে পারবেন যে আপনার পেটের ক্যান্সার হয়েছে কিনা। আর এই লক্ষণগুলো যদি অনেকদিন ধরে দেখেন তাহলে অবহেলা করা যাবে না চিকিৎসা গ্রহণ করতে হবে। 

গ্যাস্ট্রিক ক্যান্সারের লক্ষণ

গ্যাস্ট্রিক ক্যান্সারের লক্ষণ কয়েকটি রয়েছে আর এই লক্ষণ গুলো যদি দেখা দেয় তাহলে মোটেও অবহেলা করা যাবে না কারণ এই গ্যাস্ট্রিক ক্যান্সারের কারণে আপনার মৃত্যু ঝুঁকি রয়েছে। গ্যাস্ট্রিক ক্যান্সারের লক্ষণ সবার মধ্যে দেখা দেয় না তেমনভাবে তবে এর কিছু লক্ষণ রয়েছে সেগুলো হলো।

  • অতিরিক্ত ক্লান্তি বোধ করা
  • খাবার না খেলে ক্ষুধা না লাগা
  • অতিরিক্ত পেট ব্যথা করা
  • বদহজম হওয়া
  • কালো মল

অতিরিক্ত ক্লান্তি বোধ করাঃ গ্যাস্ট্রিক ক্যান্সারের অন্যতম একটি লক্ষণ হলো অতিরিক্ত ক্লান্ত বোধ করা কোনো কারণ ছাড়াই। আর এটা যদি অনেকদিন ধরে লক্ষ্য করেন তাহলে অবহেলা করা যাবে না। 

খাবার না খেলেও ক্ষুধা না লাগাঃ খাবার না খাওয়ার পরেও যদি আপনার ক্ষুধা না লাগে তাহলে এটিও হতে পারে গ্যাস্ট্রিক ক্যান্সারের একটি অন্যতম কারণ গ্যাস্ট্রিক ক্যান্সার হলে খাবার না খাওয়ার পরেও ক্ষুধা লাগতে চায় না।  

অতিরিক্ত পেট ব্যথা করাঃ যদি গ্যাস্ট্রিক ক্যান্সার হয় তাহলে অতিরিক্ত পেট ব্যথা করবে পেট ব্যথাটি মাঝে মাঝে হবে এবং সহজে ভালো হতে চাইবে না। 

বদহজম হওয়াঃ যদি কোন খাবার খাওয়ার পরে বদহজম হয় তাহলে এটিও হতে পারে গ্যাস্ট্রিক ক্যান্সারের একটি কারণ বা লক্ষণ। তাই এরকম লক্ষণ যদি প্রায় প্রায় দেখেন তাহলে এটা দ্রুত সমাধান করা উচিত। 

কালো মলঃ যদি মলের রং পরিবর্তন হয়ে কালো রঙ্গের হয়ে যাই অথবা মলের সাথে যদি রক্ত বের হয় তাহলে এটিও হতে পারে গ্যাস্ট্রিক ক্যান্সারের একটি লক্ষণ। গ্যাস্ট্রিক ক্যান্সার হলে এই লক্ষণগুলো সাধারণত দেখা দিয়ে থাকে।

হাড়ের ক্যান্সারের লক্ষণ

হাড়ের ক্যান্সারের লক্ষণ হলো কোন কারণ ছাড়াই হাড়ের বিভিন্ন জায়গায় ব্যথা করা। আবার যদি একটু ভারী কোন জিনিস তোলা হয় তাহলে সে জায়গায় অতিরিক্ত ব্যথা করা। শরীরের ওজন কমে যাওয়া হাড়ের ক্যান্সারের অন্যতম একটি লক্ষণ। শরীরের বিভিন্ন জায়গার হাড়ের সাথে থাকা মাংস ফুলে যাওয়া এছাড়া আরো অনেক লক্ষণ রয়েছে হাড়ের ক্যান্সারের। তাই এই লক্ষণ গুলো দেখা দিলে দ্রুত চিকিৎসকের সাথে পরামর্শ করে চিকিৎসা গ্রহণ করা প্রয়োজন। 

মেরুদন্ডের ক্যান্সারের লক্ষণ 

মেরুদন্ডের ক্যান্সারের লক্ষণ হল শরীর অতিরিক্ত দুর্বল লাগা, অতিরিক্ত ক্লান্তি অনুভব করা, রক্তস্বল্পতা দেখা দেওয়া, শরীরের তাপমাত্রার পরিবর্তন দেখা দেওয়া এ সকল লক্ষণগুলো যদি দেখা দেয় তাহলে এটি হতে পারে আপনার মেরুদন্ডের ক্যান্সারের ফলে। তাই এরকম লক্ষণ দেখা দিলে কখনোই অবহেলা করবেন না দ্রুত চিকিৎসকের কাছে গিয়ে পরীক্ষা করে দেখবেন এবং চিকিৎসা গ্রহণ করার চেষ্টা করবেন। 

নাকের ক্যান্সারের লক্ষণ

ব্লাড ক্যান্সারের লক্ষণ সহ সকল ক্যান্সারের লক্ষণ জানতে পারলেন কিন্তু নাকের ক্যান্সার হয়ে থাকে অনেকের। তাই আপনাদের জানা প্রয়োজন নাকের ক্যান্সারের লক্ষণ। নাকের ক্যান্সার হলে যেসব লক্ষণ দেখা দেয় সেগুলো হল।

  • নাক দিয়ে রক্ত পড়া
  • দীর্ঘ সময় কাশি এবং কাশির সাথে রক্ত
  • চেহারার পরিবর্তন
  • খাবারে অরুচি
  • ওজন হ্রাস পাওয়া

নাক দিয়ে রক্ত পড়াঃ যদি কোন কারণ ছাড়াই আপনার হঠাৎ করে নাক দিয়ে রক্ত পড়ে এবং এটি মাঝে মাঝে হয়ে থাকে তাহলে এটির নাকের ক্যান্সারের অন্যতম একটি লক্ষণ। আর এটি অনেক খারাপ একটি রোগ তাই এটার দ্রুত চিকিৎসা গ্রহণ করা প্রয়োজন। 

দীর্ঘ সময় কাশি এবং কাশির সাথে রক্তঃ কারো যদি দীর্ঘ সময় ধরে কাশি হয়ে থাকে এবং কাশির সাথে রক্ত বের হয়ে থাকে। সেটা যদি ভালো না হতে চাই তাহলে এটি হতে পারে নাকের ক্যান্সারের একটি লক্ষণ। 

আরো পড়ুনঃ পেয়ারা পাতার উপকারিতা - পেয়ারা পাতা দিয়ে চুলের যত্ন

চেহারার পরিবর্তনঃ যদি লক্ষ্য করেন যে আপনার ত্বকের মধ্যে বিভিন্ন রকম পরিবর্তন দেখা দিয়েছে। যা আগের তুলনায় অনেক অস্বাভাবিক তাহলে এটিও ধরে নিতে পারেন নাকের ক্যান্সারের লক্ষণ। 

খাবারে অরুচিঃ কোন সুস্থ মানুষের যদি হঠাৎ করে খাবারের প্রতি অনেক অরুচি চলে আসে তাহলে এটিও হতে পারে নাকের ক্যান্সারের একটি কারণ বা লক্ষণ। 

ওজন হ্রাস পাওয়াঃ যদি কারো হঠাৎ করে ওজন অতিরিক্ত হ্রাস পেয়ে যায় তাহলে ধরে নিতে পারেন এটি নাকের ক্যান্সারের একটি লক্ষণের মধ্যে পড়ে। আর এমনটি যদি আপনার সাথে হয় তাহলে অবহেলা করবেন না দ্রুত চিকিৎসকের কাছে গিয়ে পরামর্শ গ্রহণ করুন এবং চিকিৎসা গ্রহণ করুন। 

ক্যান্সারের লক্ষণ - ব্লাড ক্যান্সারের লক্ষণঃ শেষ কথা 

ক্যান্সারের লক্ষণ ব্লাড ক্যান্সারের লক্ষণ বেস্ট ক্যান্সারের লক্ষণ গলায় ক্যান্সারের লক্ষণ পেটের ক্যান্সারের লক্ষণ হাড়ের ক্যান্সারের লক্ষণ মেরুদন্ডের ক্যান্সারের লক্ষণ নাকের ক্যান্সারের লক্ষণ কি এ সকল বিষয়ে আজকের আর্টিকেল আলোচনা করা হয়েছে। 

আশা করছি আপনারা এই সকল বিষয়ে ভালোভাবে জানতে পেরেছেন। তারপরও যদি এই বিষয়ে আরো কিছু জানার থাকে তাহলে আমাদের কমেন্ট করে জানাতে পারেন এবং এরকম আরো তথ্যমূলক আর্টিকেল পেতে আমাদের ওয়েবসাইট নিয়মিত ফলো করুন। 

এই পোস্টটি পরিচিতদের সাথে শেয়ার করুন

পূর্বের পোস্ট দেখুন পরবর্তী পোস্ট দেখুন