বিভিন্ন দেশে দাঁত পড়া নিয়ে কি কি গল্প প্রচলিত আছে

ছোটবেলা যখন আমাদের প্রথম রাত উঠে তখন আমরা বিভিন্ন রকম কথা বলে থাকি। তাই আজকে আপনাদের জানাবো বিভিন্ন দেশে দাঁত পড়া নিয়ে কি কি গল্প প্রচলিত আছে। অনেকের এই বিষয়ে জানার আগ্রহ থাকে তাই চলুন আজকের এই পোস্টের মাধ্যমে জেনে নেওয়া যাক বিভিন্ন দেশে দাঁত পড়া নিয়ে কি কি গল্প প্রচলিত আছে।
বিভিন্ন দেশে দাঁত পড়া নিয়ে কি কি গল্প প্রচলিত আছে

দাঁত পড়া নিয়ে এমন অনেক অদ্ভুত ধরনের কথা রয়েছে যেগুলো আমরা সবাই ছোটবেলায় বলেছিলাম। দাঁত পড়া নিয়ে বিভিন্ন দেশের কুসংস্কার এরকম গল্প রয়েছে যেগুলো আমাদেরকে ছোটবেলায় বড়রা বলতো বা শিখাতো। 

পোস্ট সূচিপত্রঃ বিভিন্ন দেশে দাঁত পড়া নিয়ে কি কি গল্প প্রচলিত আছে 

বিভিন্ন দেশে দাঁত পড়া নিয়ে কি কি গল্প প্রচলিত আছে

বিভিন্ন দেশে দাঁত পড়া নিয়ে কি কি গল্প প্রচলিত আছে যেগুলো গল্প এখনো মানুষ তাদের সন্তানদের শুনিয়ে থাকে। যখন একটি শিশুর জন্ম গ্রহণ করার পর একটু বড় হয় এবং তার দাঁত উঠার পরে সেগুলো আবার পড়ে যায় তখন বিভিন্ন রকম গল্প বলা হয় কারণ ছোটবেলা যখন দাঁত ওঠার সময় হয় তখন অনেকেই ভয় পায় যাতে ভয় না পাই সেজন্য এই গল্পগুলো বলা হয়ে থাকে। 

যেমন বিভিন্ন দেশের মতো বাংলাদেশেও কিছু কিছু প্রচলিত গল্প রয়েছে যেগুলো মা-বাবারা তাদের সন্তানকে বলে থাকে যেমন এখনো অনেকে বলে থাকে যে দাঁত ওঠার পরে সেটা যদি বালিশের নিচে রাখা হয় তাহলে দাঁত পড়ে এসে সেটা নিয়ে যাবে তার বিনিময়ে সুন্দর একটি দাঁত দিয়ে যাবে।

আরো পড়ুন: দাঁতের মাড়ি ক্ষয় রোধ করার ঘরোয়া উপায় - দাঁতের ক্ষয় রোধের ঔষধ

এগুলো মানুষের বানানো গল্প এগুলোর সাথে বাস্তবে কোন মিল নেই। এই গল্পগুলো বলার কারণ হলো অনেক বাচ্চারা তাদের দাঁত ফেলতে ভয় পায় এজন্য তাদেরকে সাহস দেওয়ার জন্য এই গল্পগুলো বলা হয়। এতে করে বাচ্চারা অনেক সাহস পায় এবং দাঁত উপড়ে ফেলতে ভয় পায় না। তবে এই গল্পগুলো ছাড়াও আরো অনেক কুসংস্কার জনক গল্প বাচ্চাদের শোনানো হয় চলুন সেগুলো জেনে নেওয়া যাক। 

দাঁত পড়া নিয়ে বিভিন্ন দেশের কুসংস্কার

ছোট বাচ্চাদের দাঁত পড়া নিয়ে বিভিন্ন দেশের কুসংস্কার মূলক কথাবার্তা রয়েছে যেগুলো প্রায় বাবা মায়েরা বলে থাকে। কিন্তু আপনি কি জানেন কোন দেশে দাঁত পড়া নিয়ে কি রকম কুসংস্কার কথাবার্তা বলা হয় যদি না জেনে থাকেন তাহলে এখান থেকে জেনে নিন। 

দাঁত পড়া নিয়ে এশিয়া মহাদেশের মানুষদের কুসংস্কার

ছোট বাচ্চাদের দাঁত পড়ে গেলে ইঁদুরের গর্তে ফেলে দিতে বলে এবং বলা হয়ে থাকে দাঁত পড়লে সেটা যদি ইঁদুরের গর্তে নিয়ে যায় ফেলে দেওয়া হয় তাহলে সেই দাঁত ইঁদুর নিয়ে যাবে এবং ইঁদুরের সুন্দর ছোট ছোট দাঁতগুলো তাড়াতাড়ি দিয়ে যাবে। 

দাঁত পড়া নিয়ে মিশর ও অন্যান্য মধ্যপ্রাচ্য দেশের  মানুষদের কুসংস্কার

ছোট বাচ্চাদের দাঁত পড়লে সেটা জোরে করে সূর্যের দিকে ছুড়ে দিতে হয়। এতে করে তাড়াতাড়ি দাঁত উঠে এবং সূর্যের মতো উজ্জ্বল এবং ধ্বংসকে ঝকঝকে হয়ে তাড়াতাড়ি উঠে। এগুলো কুসংস্কার তাই এগুলো বাচ্চাদের শিখানো বা বলা ঠিক নয়। 

দাঁত পড়া নিয়ে চীন দেশের মানুষদের কুসংস্কার

চীন দেশে ছোট বাচ্চাদের দাঁত পড়লে গাছের নিচে অথবা বালিশের তলে দাঁত রাখতে বলা হয়। তাদের কুসংস্কার বা ধারণা হলো দাঁত যদি গাছের নিচে অথবা বালিশের নিচে রাখা হয় তাহলে দাঁত পরী এসে সেই দাঁত নিয়ে যাবে এবং সুন্দর একটি দাঁত দিয়ে যাবে। 

দাঁত পড়া নিয়ে দক্ষিণ আফ্রিকা দেশের মানুষদের কুসংস্কার

দক্ষিণ আফ্রিকার বাচ্চাদের দাঁত উঠলে তাদেরকে বলা হয় বাড়ির আশেপাশে দিয়ে কোন গোপন জায়গা থাকলে সেগুলোতে লুকিয়ে রাখার জন্য। তাদের ধারণা বা কুসংস্কার হল বাড়ির আশেপাশে গোপন জায়গায় যদি দাঁত লুকিয়ে রাখা হয় তাহলে রাতে কেউ এসে সেই দাঁত নিয়ে যাবে এবং সুন্দর একটি দাঁত দিয়ে যাবে পরবর্তীতে সুন্দর দাঁত উঠবে। 

দাঁত পড়া নিয়ে ইউরোপ মহাদেশের মানুষদের কুসংস্কার

ইউরোপ মহাদেশের বাচ্চাদের দাঁত পড়ে গেলে তখন সেই দাঁত বালিশের নিচে রাখা হয়। তাদের ধারণা অর্থাৎ কুসংস্কার হল সেই দাঁত যদি বালিশের নিচে রাখা হয় তাহলে কোন এক পরি এসে দাঁত নিয়ে যাবে এবং সুন্দর একটি দাঁত দিয়ে যাবে।

দাঁত পড়া নিয়ে আরব আমিরাতের মানুষদের কুসংস্কার

বাচ্চাদের দাঁত পড়ে গেলে সেটা গর্ত লুকিয়ে রাখতে হলে হয়। তাদের কুসংস্কার বা ধারণা হলো যদি দাঁত পড়ে যায় তাহলে কেউ যেন দাঁত দেখতে না পায় সেজন্য গর্তে লুকিয়ে রাখা হয়। তাদের ধরণের দাঁত গর্তে রাখলে কেউ না দেখতে পেলে তাড়াতাড়ি দাঁত উঠবে। 

দাঁত পড়া নিয়ে রীতিনীতি - প্রথম দাঁত পড়া নিয়ে গল্প

বাচ্চাদের যখন দাঁত উঠার পরে সেটা প্রথমবার পড়ে যাই তখন বিভিন্ন রকম ভাবে গল্প বলা হয়ে থাকে যা আমাদের সময় হয়ে এসেছে এবং এখনো হচ্ছে। প্রথম দাঁত পড়লে যে গল্পগুলো বলা হয় সেগুলো হলো:

  • দাঁতটি পড়লে সেটি নিয়ে চোখ বন্ধ করে ইঁদুরের গর্তে ফেলে দিতে হবে তাহলে তাড়াতাড়ি ইঁদুরের মত শক্ত দাঁত উঠবে।
  • দাঁত পড়লে বালিশের নিচে রাখলে পরি এসে দাত নিয়ে যায় আর তারাতাড়ি সুন্দর একটি দাত দিয়ে যায়। 
  • যেকোনো গাছের ফোকড়ে দাত ফেলে দিলে তারাতাড়ি সুন্দর দাত উঠে।
  • দাঁত উঠলে সেটা চোখ বন্ধ করে আসমানের দিকে ছুড়ে মারতে বলা হয়। এতে নাকি তাড়াতাড়ি সুন্দর দাত উঠে।
  • দাত পড়ে গেলে সেটা মাটির নিচে পুতে দিতে বলা হয়।তাহলে নাকি তাড়াতাড়ি সুন্দর দাঁত উঠবে।
  • দাঁত পড়ে গেলে পানিতে ছুঁড়ে ফেলতে বলা তাতে নাকি মাছের মতো সুন্দর দাঁত উঠবে।
  • আবার অনেক জায়গায় বলা হয় দাত উঠলে রোদে রেখে দিতে এতে নাকি দাত তাড়াতাড়ি উঠবে এবং সুন্দর হবে।

এই রকম আরো দাঁত পড়া নিয়ে রীতিনীতি এবং প্রথম দাঁত পড়া নিয়ে গল্প রয়েছে যেগুলো ছোটবেলায় সন্তানদের বলা হয়। সবচেয়ে যেটা বেশি বলা হয় এবং আমাদের সময় আমাদেরও বলা হয়ছিলো। দাঁত পড়লে ইঁদুরের গর্তের কাছে নিয়ে গিয়ে চোখ বন্ধ করে বলতে হয় ইঁদুর ভাই ইঁদুর ভাই আমার দাঁত নিয়ে যাও আর তোমার ছোট ছোট সুন্দর দাত গুলো দিয়ে যাও।🤣😁 এই কথা বলে দাঁতটি ইঁদুরের গর্তে ফেলে দেওয়া হতো। এখনো হয়তো এই গল্প বা রীতিনীতি বিভিন্ন এলাকায় প্রচলিত আছে।

অস্ট্রেলিয়ায় প্রথম দাঁত পড়লে কি করে

বিভিন্ন দেশের দাঁত পড়া নিয়ে বিভিন্ন রকম রীতি-নীতি রয়েছে। তেমনি অস্ট্রেলিয়াতেও দাঁত পড়া নিয়ে কিছু নিয়ম বা রীতিনীতি রয়েছে। অস্ট্রেলিয়ায় প্রথম দাঁত পড়লে কি করে তা জেনে নিন।

  • অস্ট্রেলিয়ায় প্রথম দাঁত পড়লে সেই দাত একটি ব্যাগে নিয়ে বালিশের নিচে রাখে। যাতে দাতপরী এসে সেই দাত নিয়ে গিয়ে সুন্দর একটা দাত দিয়ে যায়। 
  • অস্ট্রেলিয়ায় প্রথম দাঁত পড়লে শিশুদের নগদ অর্থ দেওয়া হয়ে থাকে।
  • প্রথম দাঁত পড়লে সেটা নিয়ে সূর্যের দিকে ছুড়ে মারে। যাতে করে দাঁত সূর্যের মতো উজ্জ্বল চকচকে হয়।
  • অস্ট্রেলিয়ায় প্রথম দাঁত পড়লে সেই দাত গাছের নিচে এবং কোঠরে রেখে দেওয়া হয়।
  • আবার অনেকে প্রথম দাঁত পড়ার পরে সেটা পানির পাত্রের মধ্যে রেখে দেয়।

ভারতে দাঁত পড়লে রীতিনীতি

ভারতে দাঁত পড়লে রীতিনীতি কি হয়েছে তা আমাদের জানা নেই তবে হয়তো বাংলাদেশের মতো ভারতেও ছোটদের দাঁত পড়লে সে দাঁত নিয়ে গিয়ে ইঁদুরের ঘর থেকে দেওয়া হয় এবং ইঁদুরের থেকে ছোট ছোট সুন্দর দাঁত যাওয়া হয়। 

ছোটদের দাঁত পড়লে এভাবে তারা নতুন দাঁত পাওয়ার জন্য অপেক্ষা করে। বড়দের দাঁত পড়ে গেলে তারা ডাক্তার দেখায় এবং চিকিৎসা নেই। আর বৃদ্ধদের দাঁত পড়ে গেলে তারা কোন কিছুই করে না তাদের দাঁত আর কখনোই উঠবে না। তবে বড় হয়ে যখন দাঁত পড়ার মতো অবস্থা হয় তখন অনেক যন্ত্রণা করে থাকে সেজন্য চিকিৎসকের কাছে যেতে হয়। 

দাঁত পড়া নিয়ে মজার গল্প

একটি শিশু যখন জন্মগ্রহণ করে তার একটু বয়স হলে দাঁত উঠে এবং যখন আরেকটু বড় হয় তখন সেই দাতগুলো পড়ে যায় পড়ে গিয়ে আবার নতুন করে উঠে। তবে দাঁত পড়ে যাওয়ার সময় অনেক শিশুরা ভয় পায় সেজন্য বাবা-মায়েরা কিছু মজার গল্প বলে যাতে করে তারা সাহস পায় যাতে করে দাঁত ফেলে দিতে ভয় না লাগে। 

দাঁত পড়া নিয়ে বিভিন্ন রকম মজার গল্প রয়েছে এর মধ্যে সবচেয়ে সেরা যে গল্পটি এবং এই গল্পটি বাংলাদেশের বিভিন্ন এলাকায় বেশিরভাগ বলা হয়ে থাকে তা হল যখন কোন শিশুর দাঁত পড়ে তখন সেটা চোখ বন্ধ করে ইদুরের গর্তে ফেলে দিতে বলা হয় এতে করে নাকি ইদুর সেই দাঁত নিয়ে যায় এবং তার ছোট ছোট সুন্দর এবং শক্ত দাঁতগুলো দিয়ে যায়। 

আরো পড়ুন: দাঁতের মাড়িতে ব্যথা হলে করণীয় - দাঁতের ব্যথা কমানোর ঘরোয়া উপায়  

এগুলো যেহেতু বাচ্চাদের সাহস দেওয়ার জন্য বলা হয় সেজন্য এগুলো সত্যি না হলেও কিছুটা হাস্যকর লাগে। আপনি যদি সেই যুগে জন্মগ্রহণ করে থাকেন তাহলে হয়তো এরকম গল্প আপনিও শুনেছেন বা দাঁত পড়ে গেলে ইঁদুরের গর্তে নিয়ে গিয়ে ফেলে দিয়েছেন এবং এই কথাগুলো বলেছেন। 🤣😁

বিভিন্ন দেশে দাঁত পড়া নিয়ে কি কি গল্প প্রচলিত আছে: শেষ কথা 

প্রিয় বন্ধুরা আশা করছি আজকের এই পোষ্টের মাধ্যমে আপনারা বিভিন্ন দেশে দাঁত পড়া নিয়ে কি কি গল্প প্রচলিত আছে এবং দাঁত পড়া নিয়ে বিভিন্ন দেশের কুসংস্কার কথাগুলো সম্পর্কে জানতে পেরেছেন। আপনি যদি একজন মুসলমান হয়ে থাকেন তাহলে এই সকল কুসংস্কার থেকে অবশ্যই বিরত থাকবেন।

এবং ছোট সন্তানদের মনে কখনো এগুলো কুসংস্কার ঢুকিয়ে দিবেন না। আপনার যদি এই পোস্ট পড়ার পরে আরো কিছু জানার থাকে তাহলে কমেন্ট করুন। এবং এরকম আরও বিভিন্ন তথ্য পেতে আমাদের JONOPRIYO BLOG ওয়েবসাইট ঘুরে দেখতে পারেন। 

এই পোস্টটি পরিচিতদের সাথে শেয়ার করুন

পূর্বের পোস্ট দেখুন পরবর্তী পোস্ট দেখুন