এজিথ্রোমাইসিন কোন রোগের ঔষধ ও এজিথ্রোমাইসিন খাওয়ার নিয়ম

এজিথ্রোমাইসিন কোন রোগের ঔষধ ও এজিথ্রোমাইসিন খাওয়ার নিয়ম কি এই বিষয়ে আজকের পোস্টে আলোচনা করা হবে। আপনি যদি এজিথ্রোমাইসিন কোন রোগের ঔষধ ও এজিথ্রোমাইসিন খাওয়ার নিয়ম না জেনে থাকেন তাহলে নিচের অংশগুলো ভালোভাবে পড়ুন। আশা করছি এ বিষয়ে ভালোভাবে জানতে পারবেন।
এজিথ্রোমাইসিন কোন রোগের ঔষধ ও এজিথ্রোমাইসিন খাওয়ার নিয়ম জানুন

এজিথ্রোমাইসিন ঔষধ টি অ্যান্টিবায়োটিক হিসেবে ব্যবহার করা হয়ে থাকে কিন্তু কোন কোন রোগের জন্য এটা ব্যবহার করা হয়ে থাকে তা চলুন নিচের অংশে জেনে নেওয়া যাক। 

সূচিপত্রঃ এজিথ্রোমাইসিন কোন রোগের ঔষধ ও এজিথ্রোমাইসিন খাওয়ার নিয়ম 

এজিথ্রোমাইসিন কোন রোগের ঔষধ

এজিথ্রোমাইসিন একটি অ্যান্টিবায়োটিক ঔষধ যেটা বিভিন্ন ধরনের ব্যাকটেরিয়াজনিত রোগ ভালো করতে সাহায্য করে। এজিথ্রোমাইসিন যেসব রোগ ভালো করে সেগুলো হলোঃ জ্বর, ঠান্ডা লাগা, ডায়রিয়া, কানের সংক্রমণ, ত্বকের সংক্রম, টাইফয়েড, নিউমোনিয়া এছাড়া আরও বিভিন্ন রকম ব্যাকটেরিয়ার জনিত সংক্রমণ রোগ ভালো করতে এজিথ্রোমাইসিন ঔষধ টি কাজ করে। 

এজিথ্রোমাইসিন এর উপকারিতা

এজিথ্রোমাইসিন এর উপকারিতা হলো এটা আমাদের শরীরের যেকোনো ধরনের ব্যাকটেরিয়া জনিত রোগের বিরুদ্ধে লড়াই করে এবং সেই রোগ গুলো ভালো করতে সাহায্য করে। জীবাণু দ্বারা আক্রান্ত হয়ে যেগুলো রোগ হয় সেগুলো রোগ ভালো করতে এই মেডিসিন টি কাজ করে। এজিথ্রোমাইসিন এর উপকারিতা গুলো হলোঃ 

  • ব্রংকাইটিস ভালো করতে উপকারী 
  • নিউমোনিয়া ভালো করতে উপকারী 
  • বিভিন্ন রকম স্কিন সংক্রমণ ভালো করতে উপকারী 
  • শ্বাসনালীর সংক্রমণ ভালো করতে উপকারী 
  • নারী পুরুষের বিভিন্ন রকম যৌন রোগ নিরাময় করতে উপকারী। 

এজিথ্রোমাইসিন খাওয়ার নিয়ম

অনেকে এজিথ্রোমাইসিন খাওয়ার নিয়ম সম্পর্কে জানতে চেয়ে থাকেন। আসলে এটা খাওয়ার নিয়ম আপনার রোগ অনুযায়ী হবে। বিভিন্ন রোগের ক্ষেত্রে বিভিন্ন রকম নিয়মে খেতে হবে। এজিথ্রোমাইসিন এর দুইটি ট্যাবলেট পাওয়া যায় একটি হলো ২৫০ মিলিগ্রাম এবং আরেকটি হলো ৫০০ মিলিগ্রাম। যারা প্রাপ্তবয়স্ক তারা ৫০০ মিলিগ্রাম এজিথ্রোমাইসিন ট্যাবলেটটি দিনে একবার খেতে পারবেন। 

আরো পড়ুনঃ মাথা ব্যথা কমানোর ১০ টি ঔষধের নাম ও মাথা ব্যথা কমানোর উপায় 

এবং যাদের বয়স কম তারা অর্থাৎ প্রাপ্তবয়স্ক না তারা ২৫০ মিলিগ্রামের ট্যাবলেট টি দিনে একবার খেতে পারবেন। রোগীর সকল অবস্থা এবং রোগের উপর নির্ভর করে এই ঔষধটি পাঁচ থেকে সাত দিন এর ডোজ হিসেবে দেওয়া হয়ে থাকে। তাই এই নিয়মগুলো মেনে এজিথ্রোমাইসিন ঔষধটি সেবন করতে হবে অথবা রেজিস্টার্ড চিকিৎসকের পরামর্শ অনুযায়ী সেবন করতে হবে। 

এজিথ্রোমাইসিন ৫০০ কিসের কাজ করে

এজিথ্রোমাইসিন ৫০০ বিভিন্ন রকম ব্যাকটেরিয়াজনিত সংক্রমিত রোগ ভালো করতে কাজ করে থাকে।কোন কোন রোগের জন্য এজিথ্রোমাইসিন ৫০০ ব্যবহার করতে পারবেন তা নিচে দেওয়া হলো: 

  • বিভিন্ন রকম ব্যাকটেরিয়াজনিত রোগ নিরাময় করে
  • ডায়রিয়া নিরাময় করে
  • জ্বর ও টাইফয়েড ভালো করে
  • শ্বাসতন্ত্রের সংক্রমণ নিরাময় করে 
  • কানের প্রদাহ নিরাময় করে
  • গলার সংক্রমণ নিরাময় করে
  • সাইনাস প্রদাহ নিরাময় করে
  • ত্বক বা স্কিনের সংক্রমণ নিরাময় করে
  • শ্বাস নালীর সংক্রমণ নিরাময় করে
  • নারী পুরুষের যৌন রোগ নিরাময়ে কাজ করে
  • নিউমোনিয়া ভালো করে
  • ব্রংকাইটিস রোগ ভালো করে
  • বুকের সংক্রমণ নিরাময় করে 

আরো পড়ুনঃ এলার্জির ঔষধ এর নাম - এলার্জি ঔষধ এর নাম বাংলাদেশ ২০২৪

এজিথ্রোমাইসিন ৫০০ এগুলো রোগ প্রতিরোধ করার জন্য কাজ করে থাকে। কারো যদি এগুলো রোগ হয় তাহলে এগুলো রোগ নিরাময় করতে এই ঔষধটি সেবন করতে পারেন। তবে চিকিৎসকের পরামর্শ ছাড়া কোন রকম ওষুধ সেবন করবেন না। এতে করে ক্ষতি হওয়ার সম্ভাবনা থাকে। 

এজিথ্রোমাইসিন ৫০০ খাওয়ার নিয়ম

এজিথ্রোমাইসিন ৫০০ খাওয়ার নিয়ম হলো একজন প্রাপ্তবয়স্ক রোগীর ক্ষেত্রে দিনে ১ টি করে খাবার খাওয়ার পরে সেবন করতে হবে। রোগের ধরন অনুযায়ী এবং রোগের অবস্থা অনুযায়ী এই ঔষধটি পাঁচ দিন থেকে সাত দিন সেবন করা যাবে। এই নিয়মে এজিথ্রোমাইসিন ৫০০ ট্যাবলেটটি সেবন করবেন অথবা চিকিৎসকের পরামর্শ অনুযায়ী সেবন করবেন। 

এজিথ্রোমাইসিন ৫০০ দাম কত

এজিথ্রোমাইসিন ২৫০ মিলিগ্রাম প্রতিটি ট্যাবলেট এর দাম ২৫ থেকে ২৬ টাকা এবং এবং এজিথ্রোমাইসিন ৫০০ মিলিগ্রাম প্রতিটি ট্যাবলেট এর দাম ৩৪ থেকে ৩৫ টাকা। আপনার নিকটস্থ বাজারে ডাক্তারের দোকানে এ ঔষধ টি পাবেন তবে এই ঔষধ টি বিভিন্ন কোম্পানির এবং বিভিন্ন নামে পাওয়া যায় তাই আসলটা যাচাই করে নেওয়ার চেষ্টা করবেন। 

এজিথ্রোমাইসিন এর পার্শ্ব প্রতিক্রিয়া

এটি একটি এন্টিবায়োটিক ঔষধ তাই অতিরিক্ত ব্যবহার করলে এবং নিয়মের বাহিরে ব্যবহার করলে বিভিন্ন রকম পার্শ্ব প্রতিক্রিয়া দেখা দিতে পারে যেমন,

  • বমি বমি ভাব বা বমি হতে পারে
  • অতিরিক্ত ব্যবহারে ডায়রিয়া হওয়ার সম্ভাবনা থাকে
  • পেটে ব্যথা হতে পারে
  • জ্বর বেশি হতে পারে
  • পেটের সমস্যা যেমন গ্যাস্ট্রিক এর সমস্যা বাড়তে পারে
  • উত্তেজনা বাড়তে পারে
  • ত্বকের সমস্যা দেখা দিতে পারে

আরো পড়ুনঃ ঘুমের ঔষধের নাম ও দাম - ঘুমের ঔষধের নাম ছবি 

অতিরিক্ত এজিথ্রোমাইসিন ঔষধ টি সেবনের ফলে অথবা নিয়মের বাহিরে সেবনের ফলে এগুলো পার্শ্ব প্রতিক্রিয়া হওয়ার সম্ভাবনা থাকে তাই আপনার রোগের ধরণ অনুযায়ী সঠিক নিয়মে সেবন করতে একজন চিকিৎসক এর পরামর্শ নিন।

আমাদের শেষ কথা

প্রিয় বন্ধুরা আশা করছি আজকের আর্টিকেলটি পড়ে আপনারা এজিথ্রোমাইসিন কোন রোগের ঔষধ ও এজিথ্রোমাইসিন খাওয়ার নিয়ম সম্পর্কে জানতে পেরেছেন। তবে এগুলো ঔষধ সেবন করার আগে অবশ্যই চিকিৎসকের পরামর্শ নিবেন এবং সেই অনুযায়ী সেবন করবেন। 

আর এই বিষয়ে যদি আরো কিছু জানতে চান তাহলে কমেন্ট বক্সে কমেন্ট করে জানাতে পারেন। তাহলে আমরা আপনাকে সেই বিষয়ে সঠিক পরামর্শ দিবো ইনশাআল্লাহ। 

এই পোস্টটি পরিচিতদের সাথে শেয়ার করুন

পূর্বের পোস্ট দেখুন পরবর্তী পোস্ট দেখুন