পড়াশোনায় মন বসানোর ৫ টি উপায় - পড়ায় মন বসানোর দোয়া

আসসালামু আলাইকুম পড়াশোনায় মন বসানোর ৫ টি উপায় সম্পর্কে আজকে আপনাদের জানাবো। আপনার যদি পড়াশোনায় মন না বসে তাহলে পড়াশোনায় মন বসানোর ৫ টি উপায় সম্পর্কে জেনে নিতে পারেন এবং পড়ায় মন বসানোর দোয়া জেনে রাখতে পারেন। তাহলে ইনশাআল্লাহ পড়াশোনায় মন বসবে তাহলে চলুন বিস্তারিতভাবে জেনে নেওয়া যাক পড়াশোনায় মন বসানোর ৫ টি উপায় সম্পর্কে।
পড়াশোনায় মন বসানোর ৫ টি উপায়

পড়াশোনায় মন বসে না কেন পড়াশোনায় মন বসানোর ৫ টি উপায় পড়ায় মন বসানোর দোয়া ব্রেন ভালো হওয়ার দোয়া পড়া মনে রাখার দোয়া এগুলো যদি জানতে চান তাহলে পুরো আর্টিকেল মনোযোগ সহকারে শেষ পর্যন্ত পড়ে ফেলুন।

পেজ সূচিপত্রঃ পড়াশোনায় মন বসানোর ৫ টি উপায় - পড়ায় মন বসানোর দোয়া 

পড়াশোনায় মন বসে না কেন

বর্তমানে যারা লেখাপড়া করে তাদের বেশিরভাগই এই সমস্যা যে পড়াশোনায় মন বসে না। পড়াশোনায় মন না বসার কিছু কারণ রয়েছে সেই কারণগুলো হলো। পড়াশোনায় মন না বসার জন্য সবচেয়ে বেশি যেটি দায়ী সেটা হল মোবাইল যাদের পড়াশোনায় মন বসে না তারা বেশিরভাগ মোবাইলের প্রতি আসক্ত।

অতিরিক্ত মোবাইলের প্রতি আসক্ত হওয়ার কারণে এবং অতিরিক্ত ইন্টারনেট ব্যবহার করার কারণে পড়াশোনার উপর থেকে মন উঠে গেছে পড়াশোনায় মন বসতে চায়না সেই কারণে। আবার অনেকের পড়াশোনায় মন না বসার আরো কারণ হলো বাহিরে বন্ধুদের সাথে  সাথে আড্ডা দেওয়ার নেশা।

আরো পড়ুনঃ মসজিদে ঢোকার দোয়া - মসজিদ থেকে বের হওয়ার দোয়া

পড়াশোনায় মন না বসার কারণ হলো ফেসবুকে অতিরিক্ত আসক্ত হয়ে যাওয়া এবং বন্ধুবান্ধবদের সাথে অতিরিক্ত আড্ডা দেওয়া তাই যদি পড়াশোনায় মনোযোগ দিতে চান তাহলে এইগুলো অভ্যাস ত্যাগ করতে হবে। চলুন নিচের অংশে জেনে নিন পড়াশোনায় মন বসানোর ৫ টি উপায়। 

পড়াশোনায় মন বসানোর ৫ টি উপায় - পড়ায় মন বসানোর উপায়

পড়ায় মন বসতে চায়না বর্তমানে এই সমস্যাটা প্রায় সবারই। সেজন্য এখন আপনাদের জানাবো পড়াশোনায় মন বসানোর ৫ টি উপায়। আপনার যদি পড়াশোনায় মন না বসে তাহলে পড়াশোনায় মন বসানোর ৫ টি উপায় ফলো করতে পারেন তাহলে ইনশাআল্লাহ পড়াশোনায় মন বসবে তাহলে জেনে রাখুন পড়াশোনায় মন বসানোর ৫ টি উপায়।

১। লক্ষ ঠিক বা স্থির রাখাঃ পড়াশোনায় মন বসানোর সবচেয়ে সেরা এবং প্রথম উপায় হল লক্ষ্য স্থির করা। অনেকের লক্ষ্য ঠিক না থাকার কারণে পড়াশোনায় মন বসতে চায়না যেমন কেন পড়াশোনা করছি পড়াশোনা করলে কি হবে এইগুলো লক্ষ্য যদি কারো মধ্যে ঠিক না থাকে তাহলে পড়তে মন বসবে না। আর কারো মধ্যে যদি এ লক্ষ্য গুলো ঠিক থাকে অর্থাৎ কেন পড়াশোনা করতে হবে পড়াশোনা করলে কি হবে এগুলো যদি কেউ ভাবে বা মাথার মধ্যে নিয়ে এসে চিন্তা করে তাহলে পড়াশোনায় মন বসবে। তাই প্রথমে আপনার লক্ষ্য কি সেটা ঠিক করুন এবং সেগুলো নিয়ে ভাবনার চেষ্টা করুন।

২। দৈনন্দিন পড়ার রুটিন তৈরি করাঃ আপনি যদি যেকোন কাজ রুটিন মাফিক করে থাকেন তাহলে দেখবেন সেই কাজে খুব তাড়াতাড়ি অনেক ভালো ফলাফল করতে পারছেন এবং সেই কাজের প্রতি আপনার একটা চাহিদা বা টান থাকবে। যেমন আপনি প্রতিদিন নিয়ম করে বিকাল বেলা খেলতে জান এটা একটা যেমন আপনার রুটিন হয়ে গেছে এরকমভাবে আপনাকে পড়ালেখারও একটা রুটিন তৈরি করতে হবে এবং সেই রুটিন অনুযায়ী পড়াশোনা করতে হবে। এবং আপনি যখন পড়াশোনা শুরু করবেন তখন পড়তে পড়তে মাঝে মাঝে কিছুটা বিরতি নিবেন কারণ আপনি যখন এক টানা পড়তে যাবেন তখন আপনার ব্রেন ভালোভাবে কাজ করতে চাইবে না। তাই পড়ার মাঝে একটু উঠবেন এবং হাটাহাটি করবেন। তবে পড়ার মাঝে আবার মোবাইল হাতে নিবেন না। এভাবে যদি রুটিন করতে পারেন তাহলে দেখবেন আপনার রুটিন অনুযায়ী পড়াশোনা করতে ভালো লাগবে এবং মন বসবে।

আরো পড়ুনঃ মেয়েদের ঘরে বসে ইনকাম করার উপায় - ঘরে বসে ইনকাম

৩। নিবিড় পরিবেশ তৈরি করাঃ সবকিছু করার জন্য একটা পরিবেশ প্রয়োজন হয় তেমনি লেখাপড়া করার জন্য একটা নিবিড় পরিবেশের প্রয়োজন হয়। যেমন মনে করেন আপনি যদি এমন পরিবেশে লেখাপড়া করছেন যেখানে আপনার ভালো লাগছে না বা আশেপাশে মানুষজন কথাবার্তা বলছে এরকমটা যদি হয় তাহলে পড়াশোনায় আপনার মন থাকবে না অন্যদিকে মন চলে যাবে।  সেজন্য পড়াশোনায় মন বসাতে চাইলে একটা নিবিড় পরিবেশ তৈরি করুন যেখানে বাইরের কোন শব্দ থাকবে না এবং আপনাকে কেউ ডিস্টার্ব করার মত থাকবে না তাহলে দেখবেন নিরিবিলি পড়াশোনা করতে ভালো লাগবে। 

৪। পর্যাপ্ত পরিমাণ ঘুমঃ পড়াশোনায় মন বসানোর জন্য বা যেকোন কাজে মন বসানোর জন্য অবশ্যই পর্যাপ্ত পরিমাণ ঘুমাতে হবে। কারণ আপনি যদি পর্যাপ্ত পরিমাণ না ঘুমান তাহলে আপনার মস্তিষ্ক ভালোভাবে কাজ করতে চাইবে না এবং পর্যাপ্ত ঘুম না হওয়ার কারণে শরীর আলসেমি লাগবে আর এতে করে আপনি যেকোনো কাজে বা পড়ালেখায় মনোযোগ দিতে পারবেন না। তাই পড়াশোনায় মন বসাতে চাইলে প্রত্যেকদিন পর্যাপ্ত পরিমাণ অর্থাৎ প্রত্যেকদিন ৭ থেকে ৮ ঘন্টা ঘুমাতে হবে। 

৫। পড়াশোনায় মন বসানোর জন্য মানসিক দুশ্চিন্তা থেকে মুক্ত থাকুন, যেগুলো জিনিস মনোযোগ নষ্ট করে সেগুলো জিনিস থেকে দূরে থাকুন, প্রতিদিন বেশি বেশি পানি পান করুন এতে করে মস্তিষ্ক ভালো থাকবে এবং পড়াশোনায় মন বসবে, পড়াশোনায় মনোযোগ বৃদ্ধি করার জন্য খাবারের প্রতি একটু খেয়াল রাখুন, পড়াশোনায় মন বসানোর জন্য শরীর সুস্থ থাকতে হবে সেজন্য নিয়মিত ব্যায়াম করুন এবং বন্ধুদের সাথে খেলাধুলা করুন, পড়াশোনায় মন বসানোর জন্য কম্পিউটার মোবাইল এগুলো হাতের কাছে থেকে সরিয়ে রাখুন এবং ইন্টারনেট এর প্রতি আসক্তি কমিয়ে ফেলুন। 

গুগল নিউজে আমাদের ফলো করতে এখানে ক্লিক করুন তারপরে ফলো করুন 

এগুলো উপায় যদি আপনি মেনে চলতে পারেন তাহলে দেখবেন আপনার পড়াশোনায় মন বসতেছে।আর পড়াশোনা মন বসানোর সবচেয়ে সেরা উপায় হল আপনি পড়ালেখা করে কি হবেন এবং পড়ালেখা না করলে কি ক্ষতি হতে পারে এগুলো একটু ভাবার চেষ্টা করুন। এগুলো যখন আপনি ভাববেন তখন দেখবেন আপনার পড়াশোনার উপর মনোযোগ চলে আসবে। তখন আপনার একটা চেষ্টা থাকবে যে লেখাপড়া করে ভালো কিছু করতে হবে।  

পড়ায় মন বসানোর দোয়া - পড়াশোনায় ভালো করার দোয়া

পড়াশোনায় মন বসানোর ৫ টি উপায় জানতে পেরেছেন এগুলো যদি মেনে চলতে পারেন তাহলে দেখবেন আপনার পড়াশোনায় মন বসবে। তারপরেও আপনি পড়াশোনায় মন বসানোর জন্য পড়ায় মন বসানোর দোয়া রয়েছে সেই দোয়াটি শিখতে পারেন এবং পড়ায় মন না বসলে পড়ায় মন বসানোর দোয়াটি পাঠ করতে পারেন তাহলে ইনশাআল্লাহ পড়াশোনায় মন বসবে। তাহলে জেনে নিন পড়ায় মন বসানোর দোয়াটি কি?

পড়ায় মন বসানোর দোয়াটি পড়ার আগে ওযু করে নিবেন এবং পাক-পবিত্র হয়ে পড়ায় মন বসানোর এই দোয়াটি পাঠ করবেন। 

পড়ায় মন বসানোর দোয়া আরবি: الله شبيتني واز علاني هاديام المهدية 

পড়ায় মন বসানোর দোয়া বাংলা উচ্চারণ: আল্লাহুমা ছাব্বিতনি ওয়াজ আলনী হাদিইয়্যাম মাহদিয়্যা

পড়ায় মন বসানোর দোয়া বাংলা অর্থ: হে মহান আল্লাহ আপনি আমাকে দৃঢ় রাখুন এবং সুপথগামী ও পথপ্রদর্শক বানান। ( সহীহ মুসলিম:২০ সহীহ বুখারী:৩০)

ব্রেন ভালো হওয়ার দোয়া

স্মরণশক্তি বৃদ্ধি করার জন্য এবং ব্রেন ভালো হওয়ার জন্য পবিত্র কোরআনে একটি দোয়া রয়েছে সে দোয়াটি পড়লে স্মরণশক্তি ভাবলেন শক্তি ভালো হয় ব্রেন ভালো হওয়ার দোয়াটি হলো।

আরবি: الحاخام يدني إيلما

উচ্চারণ: রাব্বি যিদনি ইলমা

অর্থ: হে আমার মহান প্রতিপালন আমার জ্ঞানশক্তি বৃদ্ধি করে দিন। (সূরা ত্বহা আয়াত নং ১১৪)

পড়া মনে রাখার দোয়া

আমাদের পবিত্র ধর্মগ্রন্থ আল কোরআনে সকল বিষয়ের সমাধান রয়েছে এবং আমল দোয়া রয়েছে কারো যদি পড়া মনে না থাকে তাহলে পড়া মনে রাখার দোয়া রয়েছে সেটা পাঠ করলে ইনশাআল্লাহ পড়া মনে থাকবে। পড়া মনে রাখার দোয়াটি হলো।

আরবি: سبها ناكا لا إل ما لانا إيلاما علام تانا إناكا أنتال العالم الحكيم

উচ্চারণ: সুবহানাকা লা ইলমা লানা ইল্লামা আল্লাম তানা ইন্নাকা আনতাল আলিমুল হাকিম।

অর্থ: হে মহান আল্লাহ  আপনি পবিত্র। আমর কোনো কিছুই জানি না আপনি আমাদের যা শিখিয়েছে সেগুলো ব্যতীত। নিশ্চয় আপনি অনেক জ্ঞানী। 

প্রায়শই জিজ্ঞাসিত কিন্তু প্রশ্ন ও উত্তর । FAQs

প্রশ্ন: পড়ালেখায় মন না বসলে কি করা উচিত?

উত্তর: পড়াশোনায় মন না বসলে পড়াশোনায় মন বসানোর জন্য ইন্টারনেট ব্যবহার করা কমিয়ে দিন, যেখানে পড়াশোনা করবেন সেই জায়গাটা যেন নিরিবিলি হয়, পর্যাপ্ত পরিমাণ ঘুমান এগুলো যদি করেন তাহলে ইনশাআল্লাহ পড়াশোনায় মন বসবে।

প্রশ্ন: কিভাবে পড়াশোনায় মনোযোগ বৃদ্ধি করা যায়? 

উত্তর: পড়াশোনায় মনোযোগ বৃদ্ধি করার জন্য জোরে জোরে শব্দ করে পড়ুন, যে পড়াটি প্রথমে সহজ হয় সেই পড়া দিয়ে শুরু করুন, এবং পড়াশোনার মাঝখানে কিছুটা বিরতি দিন। কারণ আপনি যখন একটানা পড়তে থাকবেন তখন আপনার মস্তিষ্ক কাজ করবে না এবং পড়াশোনার মনোযোগ হারিয়ে যাবে তাই একটু বিরতি দিয়ে দিয়ে যদি পড়েন তাহলে পড়াশোনায় ভালো মনোযোগ দিতে পারবেন। 

আরো পড়ুনঃ  টাকা ইনকাম করার সহজ উপায় বাংলাদেশে - ফ্রি টাকা ইনকাম

প্রশ্ন: একটানা কতক্ষণ পড়া উচিত?

উত্তর: একটানা ৪০ মিনিট থেকে এক ঘন্টা পড়া উচিত। এরকম সময় পড়ার পরে কিছুটা বিরতি দিয়ে আবারো পড়া শুরু করবেন। 

প্রশ্ন: পড়াশোনার উদ্দেশ্য কি?

উত্তর: পড়াশোনার মূল উদ্দেশ্য হলো জ্ঞান অর্জন করা, একজন ভালো মানুষ হওয়া নিজের ভবিষ্যৎ জীবন আলোকিত করা এবং দেশ এবং দশের উন্নয়নের জন্য কাজ করা। এগুলোই হল পড়াশোনার উদ্দেশ্য। তবে বর্তমানে বেশিরভাগ বাবা-মায়েরাই মনে করে পড়াশোনার একমাত্র উদ্দেশ্য হলো ভালো কোন চাকরি করা।  

পড়াশোনায় মন বসানোর ৫ টি উপায় - পড়ায় মন বসানোর দোয়া: শেষ কথা

পড়াশোনায় মন বসে না কেন পড়াশোনায় মন বসানোর ৫ টি উপায় পড়ায় মন বসানোর উপায় পড়ায় মন বসানোর দোয়া পড়াশোনায় ভালো করার দোয়া ব্রেন ভালো হওয়ার দোয়া পড়া মনে রাখার দোয়া এই সকল বিষয়ে আজকের আর্টিকেলে আলোচনা করা হয়েছে। 

আশা করছি আপনারা এই সকল বিষয়ে ভালোভাবে জানতে পেরেছেন। তারপরও যদি এই বিষয়ে আরো কিছু জানার থাকে তাহলে কমেন্ট করে আমাদের জানাতে পারেন। এবং এরকম আরো তথ্যমূলক বিষয়ে জানতে আমাদের JONOPRIYO BLOG ওয়েবসাইট নিয়ম ভিজিট করুন। এতক্ষণ আমাদের সাথে থাকার জন্য অসংখ্য ধন্যবাদ।  

এই পোস্টটি পরিচিতদের সাথে শেয়ার করুন

পূর্বের পোস্ট দেখুন পরবর্তী পোস্ট দেখুন