পাইলস এর ঘরোয়া চিকিৎসা - কি খেলে পাইলস ভালো হয়

পাইলস একটি জটিল এবং কঠিন রোগ এই রোগ যাদের রয়েছে তারা বুঝে কেমন হয়। সেজন্য আজ আপনাদের জানাবো পাইলস এর ঘরোয়া চিকিৎসা সম্পর্কে। পাইলস এর ডাক্তারি চিকিৎসা রয়েছে কিন্তু সেটা করার আগে আপনি যদি পাইলস এর ঘরোয়া চিকিৎসা করার মাধ্যমে ভালো করতে পারেন তাহলে অনেক ভালো হবে। তাহলে চলুন জেনে নেওয়া যাক পাইলস এর ঘরোয়া চিকিৎসা সম্পর্কে ও কি খেলে পাইলস ভালো হয় সেই সম্পর্কে।
পাইলস এর ঘরোয়া চিকিৎসা

পাইলস রোগের লক্ষণ কি কি পাইলস রোগের ঘরোয়া চিকিৎসা কি খেলে পাইলস ভালো হয় এই সকল বিষয়ে আজকে আলোচনা করা হবে তাই আর্টিকেলটি শেষ পর্যন্ত পড়তে থাকুন। 

পেজ সূচিপত্রঃ পাইলস এর ঘরোয়া চিকিৎসা - কি খেলে পাইলস ভালো হয় 

পাইলস এর লক্ষণ - পাইলস হলে কি কি সমস্যা হয়

বর্তমানে অনেকেরই পাইলসের মতো সমস্যা হয়ে থাকে। তবে পাইলসের সমস্যা যদি প্রথম প্রথম বুঝতে পারেন তাহলে পাইলস এর ঘরোয়া চিকিৎসা রয়েছে সেগুলো করার মাধ্যমে পাইলস ভালো করতে পারেন।পাইলস এর ঘরোয়া চিকিৎসা কি এবং কি খেলে পাইলস ভালো হয় তা আপনাদের জানাবো কিন্তু তার আগে জানা প্রয়োজন পাইলস এর লক্ষণ গুলো সম্পর্কে অর্থাৎ পাইলস হলে কি কি লক্ষণ দেখা দেয়।পাইলস হলে যে সকল সমস্যা দেখা দেয় সেগুলো হলো।

আরো পড়ুনঃ নাকের পলিপাস এর ঘরোয়া চিকিৎসা - নাকের পলিপাস এর ড্রপ 

পাইলসের লক্ষণ হলো মলত্যাগ করার সময় মলদ্বার দিয়ে রক্ত বের হওয়া। এছাড়াও পাইলসের আরও লক্ষণ হলো মলদ্বার ব্যথা করা মলদ্বার জ্বালা করা এবং মলদ্বারের মাংস গুটি হওয়া। এবং অতিরিক্ত রক্ত ক্ষরণ হওয়ার ফলে রক্ত শূন্যতা দেখা দেওয়া এগুলো সবই পাইলস এর লক্ষণ। 

পাইলস এর ঘরোয়া চিকিৎসা - পাইলস থেকে চিরতরে মুক্তির উপায় 

পাইলস এর যেই লক্ষণ গুলো রয়েছে এগুলো যদি আপনার ভিতর দেখতে পান আর আপনি যদি নিশ্চিত হতে পারেন যে এটা পাইলস এর সমস্যা তাহলে দ্রুত চিকিৎসক এর পরামর্শ নেওয়া প্রয়োজন। কারণ এটা যখন হালকা থাকে তখন তারাতাড়ি ভালো করা যায়। ডাক্তার দেখানোর পাশাপাশি পাইলস এর ঘরোয়া চিকিৎসার মাধ্যমে তা ভালো করতে পারেন। জেনে রাখুন পাইলস এর ঘরোয়া চিকিৎসা সম্পর্কে। 

বরফ বা আইসপ্যাক

ঘরোয়া উপায়ে পাইলস ভালো করার জন্য বরফ অনেক কার্যকরী। প্রথমে কয়েক টুকরো বরফ নিবেন এবং সেই বরফগুলো একটি কাপড়ের মধ্যে মুড়াবেন মোড়ানোর পরে যেখানে আপনার পাইলসের সমস্যা এবং ব্যথা করে সেখানে লাগিয়ে রাখবেন। এভাবে যদি দিনের মধ্যে কয়েকবার করতে পারেন তাহলে তাড়াতাড়ি অনেকটা আরাম পেয়ে যাবেন। 

গরম পানি

পাইলস ভালো করার আরেকটি ঘরোয়া উপায় হল গরম পানির ভাপ নেওয়া। প্রথমে পানি গরম করে নিবেন পানি গরম করা হয়ে গেলে একটি ঢাকনাযুক্ত শক্ত পাতিলে ঢালবেন ঢালার পরে পাতিলের মুখ লাগিয়ে দিবেন এবং তার উপরে বসে পড়বেন অথবা হালকা কুসুম গরম পানি করে সরাসরি পানির উপর বসতে পারেন। এভাবে যদি গরম পানির ভাপ নিতে পারেন তাহলে পাইলস ভালো হয়ে যাবে। 

মলদ্বারপরিষ্কার রাখা

পাইলস ভালো করার জন্য সব সময় মলদ্বার পরিষ্কার পরিচ্ছন্ন রাখতে হবে এবং মলত্যাগ করার পরে অতিরিক্ত ঘষাঘষি করে পরিষ্কার করা যাবে না।আলতো ভাবে পরিষ্কার করতে হবে। এভাবে যদি করতে পারেন তাহলে পাইলসের সমস্যা অনেকটা কমে যাবে। 

আরো পড়ুনঃ জন্মনিয়ন্ত্রণ পদ্ধতি কোনটা ভালো -প্রাকৃতিক জন্মনিয়ন্ত্রণ পদ্ধতি

আপেল সিডার ভিনেগার

ঘরোয়া ভাবে পাইলস ভালো করার জন্য আপেল সিডার ভিনেগার অনেক কার্যকরী। একটা তুলার মধ্যে আপেল সিডার ভিনেগার হালকা করে লাগিয়ে নিন এবং যেখানে পাইলসের ব্যথা বা যন্ত্রণা হচ্ছে সেখানে সুন্দরভাবে লাগিয়ে দিন। প্রথমে হয়তো একটু জ্বালাপোড়া করতে পারে তবে কিছুক্ষণ পরে ভালো হয়ে যাবে। এভাবে যদি কয়েকবার করতে পারেন তাহলে পাইলস ভালো হয়ে যাবে। 

 অ্যালোভেরা বা ঘৃতকুমারী

আপনার হয়তো অনেকে জেনে থাকবেন অ্যালোভেরার অনেক ঔষধি গুণ রয়েছে তাই কারো যদি পাইলসের মত সমস্যা থেকে থাকে তাহলে অ্যালোভেরা জেল ব্যবহার করার মাধ্যমে তা নিরাময় করতে পারেন। পাইলসের সমস্যা ভালো করার জন্য এলোভেরার ভেতর যে সাদা অংশ থাকে সেগুলো সুন্দরভাবে জেলের মতো তৈরি করে পাইলসের জায়গায় লাগিয়ে রাখুন তাহলে অনেকটা উপকার পাবেন। 

আশ ও ফাইবার যুক্ত খাবার

পাইলস থেকে মুক্তি পাওয়ার জন্য সবচেয়ে বেশি যেটা প্রয়োজন সেটা হল আঁশ এবং ফাইবার যুক্ত খাবার খাওয়া। আমরা অনেকেই রয়েছি যারা পুষ্টিকর খাবার তেমন একটা খেতে পারি না আর সেজন্য পাইলস সহ বিভিন্ন রকম রোগ হয়ে থাকে। সেজন্য আঁশ ও ফাইবারযুক্ত খাবার যেমন বিভিন্ন রকম শাকসবজি ফলমূল আটার রুটি সহ আরো যে সকল আঁশ ও ফাইবার যুক্ত খাবার রয়েছে সেগুলো খেতে হবে। 

ইসবগুলের ভুষি

পাইলস এর ঘরোয়া চিকিৎসা ঘরোয়া চিকিৎসার মধ্যে সবচেয়ে ভালো একটি চিকিৎসা বা উপায় হলো ইসবগুলের ভুষি। ইসবগুলের ভুষি যদি আপনি খেতে পারেন তাহলে এতে করে আঁশ এবং ফাইবার এর চাহিদা অনেকটা পূরণ হবে এবং এতে করে আপনার পায়খানা অনেকটা নরম হবে। আর এভাবে যদি কিছুদিন ইসবগুলের ভুসি খেতে পারেন তাহলে পাইলসের সমস্যা দূর হয়ে যাবে। 

ওজন কমানো

আপনার যদি পাইলসের সমস্যা থেকে থাকে এবং আপনার ওজন যদি বেশি হয়ে থাকে তাহলে প্রথমে আপনার ওজন কমাতে হবে। যদি ওজন কমাতে পারেন তাহলে খুব সহজে পাইলসের সমস্যা সমাধান হয়ে যাবে। কারণ অতিরিক্ত ওজনের ফলে পাইলসের সমস্যা দেখা দিয়ে থাকে সেজন্য ওজন কমাতে হবে। 

শরীরচর্চা বা ব্যায়াম

পাইলস এর ঘরোয়া চিকিৎসার মধ্যে আরও একটি চিকিৎসা হলো নিয়মিত শরীরচর্চা বা ব্যায়াম করা অনেকেই রয়েছে যারা সারাদিনে তেমন কোন কাজ করে না এবং শুধুমাত্র খাই এবং বসে থাকে তাদের হতে পারে পাইলসের সমস্যা সেজন্য নিয়মিত ব্যায়াম করা প্রয়োজন। আর যাদের আগে থেকে সমস্যা রয়েছে তারাও নিয়মিত ব্যায়াম করবেন তাহলে সমস্যা দূর হয়ে যাবে।  

লেবু আদার রস ও মধু

পাইলস এর ঘরোয়া চিকিৎসার মধ্যে আরও একটি অন্যতম চিকিৎসা হলো লেবু আদার রস এবং মধু যদি একসাথে মিশিয়ে খেতে পারেন তাহলে এতে করে পাইলসের সমস্যা খুব সহজেই ভালো করতে পারবেন।প্রথমে একটি পাত্রে হালকা পরিমাণ মধুনিন এবং তার ভেতর লেবুর রস এবং হালকা পরিমাণ আদা কুচি করে কেটে দিন তারপরে সুন্দরভাবে মিশিয়ে তা পান করুন। 

পাইলস এর প্রাথমিক চিকিৎসা 

পাইলস ভালো করার বিভিন্ন পদ্ধতি রয়েছে এবং পাইলস ভালো করার অনেক চিকিৎসা রয়েছে পাইলসের কিছু চিকিৎসা হলো ইনজেকশন, আল্ট্রয়েড,লেজার থেরাপি, এনাল ডাইলেটেশন সহ আরো রয়েছে অপারেশন।  

তবে প্রথম প্রথম হলে আর আপনি যদি তারাতাড়ি বুঝতে পারেন তাহলে এগুলো চিকিৎসার প্রয়োজন নেই ওপরের অংশে যেগুলো ঘরোয়া উপায় বলা হয়েছে সেগুলো মেনে চললেই প্রাথমিক অবস্থায় পাইলস ভালো করা সম্ভব। তারপরেও যদি পাইলস এর চিকিৎসা করাতে চান তাহলে আগে একটা ভালো ডাক্তারের পরামর্শ গ্রহণ করুন।

পাইলস এর চিকিৎসা ঔষধ 

পাইলস হলে প্রথম অবস্থায় ঔষধ খাওয়ার প্রয়োজন হয় না ঘরোয়া উপায়ে ভালো করা যায়। পাইলস হলে মলদ্বার দিয়ে রক্ত যায় এবং পায়খানা কষা হয়ে থাকে আর যদি পায়খানা কষা থেকে নরম করা যায় তাহলে পাইলস এর সমস্যা দূর হয়। 

পাইলস হলে পায়খানা কষা এবং রক্ত পড়া বন্ধ করার জন্য Normanal 500mg - নরমানাল ৫০০ মি.গ্রা এই ঔষধ টি খেতে পারেন। সকল ঔষধ খাওয়ার আগে অবশ্যই চিকিৎসক এর পরামর্শ নিবেন। নিজ বুদ্ধিতে কখনো ঔষধ খাবেন না।

পাইলস এর এলোপ্যাথিক ঔষধ 

পাইলস রোগ সারানোর অনেক উপায় রয়েছে তারমধ্যে একটি হলো এলোপ্যাথিক ঔষধ। পাইলস রোগ ভালো করার জন্য বেশ কিছু এলোপ্যাথিক ঔষধ রয়েছে। জেনে রাখুন পাইলস এর এলোপ্যাথিক ঔষধ এর নাম।

Daflon 500 mg - পাইলস ভালো করার জন্য এটি একটি কার্যকরী ঔষধ। এই ঔষধটি খাওয়ার নিয়ম হলো সকাল দুপুর রাতে দুটা করে তিনদিন খেতে হবে। এছাড়া ডাক্তারের বলে দেওয়া নিয়ম অনুযায়ী খেতে হবে। 

এছাড়াও পাইলস ভালো করার জন্য Osmolax নামে একটি এলোপ্যাথিক সিরাপ রয়েছে এটাও খেতে পারেন ভালো কার্যকরী। তবে যেই ঔষধি সেবন করেন না কেন আগে ডাক্তারের পরামর্শ নিবেন। 

পাইলস এর ক্রিম 

পাইলস এর ঘরোয়া চিকিৎসা সহ অনেক কিছু ইতোমধ্যে জানতে পেরেছেন। পাইলস ভালো করার অনেক পদ্ধতি রয়েছে ঔষধ রয়েছে এবং পাইলস এর ক্রিম রয়েছে সেগুলোর মাধ্যমে পাইলস ভালো করতে পারেন। 

পাইলস ভালো করার জন্য সবচেয়ে কার্যকরী একটি ক্রিম হলো Erian এটা পাইলস এর জায়গায় লাগাতে হয়। এই ক্রিম টি যেকোনো ডাক্তারের দোকানে পেয়ে যাবেন। এই ক্রিম ব্যবহার করার আগে ভালো করে নিয়ম জেনে নিবেন চিকিৎসকের থেকে।

কি খেলে পাইলস ভালো হয়

কি খেলে পাইলস ভালো হয় এ প্রশ্নটা সচরাচর অনেকেই করে থাকেন। সেজন্য এই অংশে আপনাদের জানাবো কি খেলে পাইলস ভালো হয়। আপনারা যদি পাইলস রোগ হয়ে থাকে তাহলে আপনার জানতে হবে কি খেলে পাইলস ভালো হয় কারণ অনেক খাবার রয়েছে যেগুলো খাওয়ার মাধ্যমে খুব সহজেই পাইলস ভালো করতে পারেন তাহলে চলুন জেনে নেওয়া যাক কি খেলে পাইলস ভালো হয় সেগুলো সম্পর্কে। 

১। কি খেলে পাইলস ভালো হয় যদি জানতে চান তাহলে প্রথমেই বলব আপনাকে বেশি বেশি পানি পান করতে হবে। আপনি যদি বেশি বেশি পানি পান করেন তাহলে খুব সহজে পাইলস ভালো করতে পারবেন।

আরো পড়ুনঃ আদার উপকারিতা ও অপকারিতা - আদা খাওয়ার নিয়ম

২। বেশি বেশি ফাইবার সমৃদ্ধ খাবার খাবার খেতে হবে যেমন ফাইবার সমৃদ্ধ যে সকল ফলমূল রয়েছে শাকসবজি রয়েছে সেগুলো বেশি বেশি খেতে হবে। 

৩। আটার রুটি ডাল এগুলো খাবার বেশি বেশি খাওয়ার চেষ্টা করবেন। 

৪। পাইলস ভালো করার জন্য কলা অনেক উপকারী একটি খাবার সেজন্য কলা খেতে পারেন। 

আর প্রতিদিনের খাবারের রাখবেন বিভিন্ন রকম শাকসবজি কারণ শাকসবজি আপনার কষা পায়খানা ভালো করতে সাহায্য করবে। আর যখন কষা পায়খানা সমস্যা ভালো হয়ে পায়খানা নরম হবে তখন পাইলসের সমস্যা অনেকটা কমে যাবে। আশা করছি জানতে পারলেন কি খেলে পাইলস ভালো হয়। 

পাইলস থেকে কি ক্যান্সার হয় 

অনেকেই প্রশ্ন করে থাকেন পাইলস থেকে কি ক্যান্সার হয় তাদের উদ্দেশ্যে বলতে চাই না পাইলস থেকে ক্যান্সার হয় না। কারণ পাইলস এবং ক্যান্সারের কোন সম্পর্ক নেই। তাই যারা ভেবে থাকেন পাইলস থেকে ক্যান্সার হতে পারে এটা একদমই ভুল ধারণা। 

তবে কারো যদি আগে থেকে ক্যান্সারের সমস্যা থাকে তাহলে ক্যান্সার এবং পাইলস একসাথে হতে পারে। তবে কখনোই পাইলস থেকে ক্যান্সার হয় না। সেজন্য পাইলস হলে অতিরিক্ত ঘাবড়ে না গিয়ে চিকিৎসা গ্রহণ করুন খুব দ্রুত ভালো হয়ে যাবে।

পাইলস এর ঘরোয়া চিকিৎসা - কি খেলে পাইলস ভালো হয়ঃ শেষ কথা 

পাইলস এর লক্ষণ পাইলস হলে কি কি সমস্যা হয় পাইলস এর ঘরোয়া চিকিৎসা পাইলস এর চিকিৎসা ঔষধ পাইলস এর এলোপ্যাথিক ঔষধ পাইলস এর ক্রিম পাইলস থেকে চিরতরে মুক্তির উপায় কি খেলে পাইলস ভালো হয় পাইলস থেকে কি ক্যান্সার হয় কিনা এই সকল বিষয়ে আজকের আর্টিকেলে আলোচনা করা হয়েছে। 

আশা করছি এই সকল বিষয়ে ভালোভাবে জানতে পেরেছেন। তারপরেও যদি এই বিষয়ে আরো কিছু জানার থাকে তাহলে কমেন্টের মাধ্যমে আমাদের জানাতে পারেন। এবং এরকম আরো তথ্যমূলক আর্টিকেল পেতে আমাদের JONOPRIYO BLOG ওয়েবসাইট নিয়মিত ফলো করুন। এতক্ষণ আমাদের সাথে থাকার জন্য অসংখ্য ধন্যবাদ। 

এই পোস্টটি পরিচিতদের সাথে শেয়ার করুন

পূর্বের পোস্ট দেখুন পরবর্তী পোস্ট দেখুন