তাড়াতাড়ি মাসিক হওয়ার ঘরোয়া উপায় - একদিনে মাসিক হওয়ার ঘরোয়া উপায়

তাড়াতাড়ি মাসিক হওয়ার ঘরোয়া উপায় সম্পর্কে যারা জানতে চান আজকের পোস্টটি তাদের জন্য। অনেক মা বোন রয়েছে যাদের তাড়াতাড়ি বা সময় মতো মাসিক হয় না সেজন্য এই বিষয়ে দুশ্চিন্তা করে থাকেন। তাই আজকে আপনাদের জানাবো তাড়াতাড়ি মাসিক হওয়ার ঘরোয়া উপায় একদিনে মাসিক হওয়ার ঘরোয়া উপায়। তাহলে চলুন জেনে নেওয়া যাক তাড়াতাড়ি মাসিক হওয়ার ঘরোয়া উপায় গুলো।
তাড়াতাড়ি মাসিক হওয়ার ঘরোয়া উপায়

মাসিক বন্ধ হওয়ার কারণ কি তাড়াতাড়ি মাসিক হওয়ার ঘরোয়া উপায় একদিনে মাসিক হওয়ার ঘরোয়া উপায় সহ এই সম্পর্কিত আরো কিছু বিষয়ে জেনে নিন নিচের অংশ গুলো থেকে।

সূচিপত্র: তাড়াতাড়ি মাসিক হওয়ার ঘরোয়া উপায় - একদিনে মাসিক হওয়ার ঘরোয়া উপায়

মাসিক বন্ধ হওয়ার কারণ কি

সাধারণত মেয়েদের ২৮ থেকে ৩৫ দিনের মধ্যে মাসিক হয়ে থাকে কিন্তু বিভিন্ন কারণে অনেক সময় মাসিক বন্ধ হয়ে যায় এতে করে অনেকে দুশ্চিন্তায় পড়ে থাকে। কিন্তু মাসিক বন্ধ হওয়ার কারণ কি এটা অনেকেরই অজানা। তাই এগুলো কারণ যদি জানা থাকে তাহলে অনেক ভালো হয়। মাসিক বন্ধ হওয়া বা দেরিতে হওয়ার কয়েকটি কারণ রয়েছে সেগুলো হলো 

প্রেগনেন্ট: আপনি যদি বিবাহিত হয়ে থাকেন এবং যদি দেখেন হঠাৎ করে মাসিক বন্ধ হয়ে গেছে বা মাসিক হতে দেরি হচ্ছে তাহলে প্রথমে আপনাকে প্রেগনেন্সি টেস্ট করাতে হবে। কারণ গর্ভধারণ করলে মাসিক বন্ধ হয়ে যায়। 

ওজন কমে যাওয়াঃ হঠাৎ করে যদি ওজন কমে যায় তাহলে সেই কারণে মাসিক হওয়া বন্ধ হয়ে যেতে পারে বা দেরিতে হতে পারে। তাই আপনার যদি হঠাৎ মাসিক বন্ধ হয়ে যায় বা হতে দেরি হয় তাহলে ওজন কমে গেছে কিনা সেই দিকে লক্ষ্য করুন।

স্ট্রেস বা মানসিক চাপঃ অনেক সময় অতিরিক্ত স্ট্রেস বা মানসিক চাপের মধ্যে থাকলে মাসিক দেরিতে হতে পারে বা কিছুদিনের জন্য বন্ধ হয়ে যেতে পারে। 

আরো পড়ুন: মাসিক বন্ধ হলে কি বাচ্চা হওয়ার সম্ভাবনা থাকে - মাসিক না হলে ঔষধ 

হরমোন জনিত কারণঃ অনেক সময় হরমোন জনিত কারণে মধ্য বয়সী এবং অল্প বয়সী মেয়েদের মাসিক দেরিতে হতে পারে বা বন্ধ হতে পারে।

ফাইব্রয়েডঃ অনেক সময় দেখা যায় অনেক মেয়েদের জরায়ুতে টিউমার হয়েছে আর এই জরায়ুতে টিউমার হওয়ার কারণে মাসিক বন্ধ হতে পারে।   

স্বাস্থ্য সমস্যাঃ অনেক সময় বিভিন্ন রকম স্বাস্থ্য সমস্যা থাকার কারণে মাসিক দেরিতে হতে পারে বা বন্ধ হয়ে যেতে পারে যেমন গলার ইনফেকশন, ঠান্ডা লাগা, সর্দি লাগা, মনো নিউক্লিওসিস সহ আরো বিভিন্ন রকম স্বাস্থ্য সমস্যা থাকার কারণে মাসিক বন্ধ হয়ে যেতে পারে। 

হরমোনাল বার্থ কন্ট্রোলঃ হরমোনাল বার্থ কন্ট্রোল হলো বিভিন্ন রকম জন্মনিয়ন্ত্রণ পদ্ধতি যেমন জন্মনিয়ন্ত্রণ পিল, ইনজেকশন সহ আরো অনেক পদ্ধতি ব্যবহার করার ফলে মাসিক বন্ধ হয়ে যেতে পারে অথবা দেরিতে হতে পারে।

তাড়াতাড়ি মাসিক হওয়ার ঘরোয়া উপায়

মাসিক একটা মেয়ের জন্য একটা গুরুত্বপূর্ণ বিষয়। অনেক মেয়েদের তাড়াতাড়ি মাসিক হয় না এতে করে অনেক দুশ্চিন্তাগস্ত হয়ে পড়ে। দুশ্চিন্তা করবেন না কারণ অতিরিক্ত দুশ্চিন্তা মাসিক বন্ধ করে দেই। তাড়াতাড়ি মাসিক হওয়ার ঘরোয়া উপায় গুলো মানতে পারলে ইনশাআল্লাহ মাসিক হবে। তবে যারা বিবাহিত মাসিক বন্ধ হয়ে গেছে তারা এগুলো উপায় অবলম্বন করার আগে চিকিৎসক এর পরামর্শ নিবেন। পরিক্ষা করাবেন যে আপনি গর্ভধারণ করেছেন কিনা। কারণ প্রেগনেন্সি টেস্ট না করে এগুলো উপায় অ্যাপ্লাই করলে গর্ভপাত হতে পারে। তাহলে জেনে নিন তাড়াতাড়ি মাসিক হওয়ার ঘরোয়া উপায় গুলো। 

দুশ্চিন্তা মুক্ত থাকা - মাসিক বন্ধ হয়ে যায় অতিরিক্ত মানসিক চাপ বা দুশ্চিন্তার মধ্যে থাকলে সেজন্য মাসিক তাড়াতাড়ি এবং স্বাভাবিক ভাবে হওয়ার জন্য প্রথমেই দুশ্চিন্তা মুক্ত থাকতে হবে।

ভিটামিন সি গ্রহণ করা - শরীরের বিভিন্ন রকম রাসায়নিক প্রক্রিয়া ঠিক এবং স্বাভাবিক রাখতে ভিটামিন সি অনেক প্রয়োজন। ভিটামিন সি মানিক তাড়াতাড়ি হওয়ার জন্য প্রয়োজন। এই ভিটামিন সি পাওয়া যায় কমলালেবু, টমেটো, পাতিলেবু সহ আরো অনেক শাকসবজি ফলমূলে পাওয়া যায়।  সেজন্য তাড়াতাড়ি মাসিক হওয়ার জন্য ভিটামিন সি জাতীয় খাবার খাবেন। 

নিয়মিত ব্যায়াম - মাসিক তাড়াতাড়ি হওয়ার জন্য নিয়মিত শরীরচর্চা বা ব্যায়াম করা প্রয়োজন। যারা নিয়মিত ব্যায়াম করে তাদের মাসিক নিয়মিত হয়।

আদা চা - নিয়মিত তাড়াতাড়ি মাসিক হওয়ার জন্য আদা চা বেশ কার্যকরি। তাই আপনার মাসিক যদি নিয়মিত না হয় তাড়াতাড়ি মাসিক হওয়ার জন্য আদা চা খাবেন। তবে অতিরিক্ত বেশি খাবেন না।

নিয়মিত সহবাস - যেসব মহিলা বিবাহিত কিন্তু মাসিক তাড়াতাড়ি হয়না তাদের জন্য নিয়মিত সহবাস করা অনেক জরুরি কারণ নিয়মিত সহবাসের ফলে মাসিক তাড়াতাড়ি হওয়ার সম্ভাবনা থাকে। 

টক ফল - মেয়েদের মাসিক তাড়াতাড়ি হওয়ার জন্য টক জাতীয় ফল বেশ কার্যকরি। টক ফলের মধ্যে রয়েছে কমলালেবু, তেতুল, জলপাই, পাতি লেবু ইত্যাদি। এগুলো টক ফল খেলে ইনশাআল্লাহ তাড়াতাড়ি মাসিক হবে।

আপেল সিডার ভিনেগার - আপেল সিডার ভিনেগার তাড়াতাড়ি মাসিক হওয়ার জন্য বেশ কার্যকরী। তাই খাবার খাওয়ার আগে দুই চামচ পরিমাণ আপেল সিডার ভিনেগার পানির মধ্যে মিশিয়ে পান করুন। এতে করে রক্তে ইনসুলিন এর পরিমাণ এবং ব্লাড সুগারের পরিমাণ কমে যাবে এবং তাড়াতাড়ি মাসিক হবে। 

পেঁপে - অনেকেরই পছন্দের খাবার পেঁপের মধ্যে রয়েছে ক্যারোটিনের পরিমাণ যা মেয়েদের দ্রুত বা তাড়াতাড়ি মাসিক হতে সাহায্য করে। তাই যাদের তাড়াতাড়ি বা নিয়মিত মাসিক হয় না তারা পেঁপে খাবেন। 

একদিনে মাসিক হওয়ার ঘরোয়া উপায়

একদিনে মাসিক হওয়ার ঘরোয়া উপায় অনেকে জানতে চেয়ে থাকেন আসলে এত তাড়াতাড়ি একদিনে মাসিক হওয়ার কোনোভাবে সম্ভব নয় তবে কিছু উপায় রয়েছে যেগুলো উপায় অবলম্বন করলে কয়েক দিনের মধ্যে মাসিক হতে পারে। তারপরও যারা জানতে চেয়ে থাকেন একদিনে মাসিক হওয়ার ঘরোয়া উপায় তারা এই কয়েকটি উপায় অবলম্বন করতে পারেন সেগুলো হলো।

  • একদিনে বা দ্রুত মাসিক হওয়ার জন্য কোন পাত্রের মধ্যে অথবা বোতলের মধ্যে গরম পানি নিয়ে নিন এবং সেটা দিয়ে প্রত্যেকদিন ১০/১২ মিনিটের সেক দিন তাহলে দ্রুত মাসিক হবে।
  • ২ কাপ পানির মধ্যে এক চামচ পরিমাণ ধনের বিজ দিন দিয়ে সেগুলো সুন্দরভাবে ফুটিয়ে নিন পানি যখন কমে যাবে তখন সেগুলো ভালোভাবে সেকে নিয়ে প্রতিদিন দুই থেকে তিনবার করে পান করুন তাহলে দ্রুত মাসিক হবে।
  • তিলের বীজ গরম পানির মধ্যে দিয়ে সেগুলো হালকা ঠান্ডা হয়ে গেলে খেয়ে ফেলুন তাহলে দ্রুত মাসিক হবে।
  • একদিনে বা দ্রুত মাসিক হওয়ার জন্য স্বাস্থ্যকর জীবন যাপন করা প্রয়োজন। তাই সকল স্বাস্থ্যকর নিয়ম মেনে চলার চেষ্টা করুন তাহলে দ্রুত মাসিক হবে ইনশাআল্লাহ। 

মাসিক হওয়ার লক্ষণ সমূহ

মাসিক প্রত্যেকটা মেয়েরই হওয়া প্রয়োজন এবং এটা হয়েও থাকে কিন্তু মাসিক হওয়ার কিছু লক্ষণ সমূহ রয়েছে যেগুলো অনেক মেয়েরা বুঝতে পারে আবার অনেক মেয়েরা বুঝতে পারে না। তবে মাসিক হওয়ার লক্ষণ সমূহ সম্পর্কে জেনে রাখা প্রয়োজন এতে করে এগুলো লক্ষণ যদি আপনার মধ্যে দেখা দেয় তাহলে বুঝতে পারবেন যে আপনার মাসিক হতে চলেছে। মাসিক হওয়ার লক্ষণ সমূহ গুলো হলো:

  1. তলপেটে ব্যথা করতে পারে
  2. অতিরিক্ত ক্ষুধা লাগবে
  3. অনিদ্রা হতে পারে
  4. মেজাজ খিটখিটে হবে
  5. মুখে ব্রণ বের হতে পারে
  6. বমি বমি ভাব বমি হতে পারে
  7. মাথা ব্যথা করতে পারে
  8. কারো কারো খাবারের প্রতি অনীহা দেখা দেয়। 
এগুলো মূলত মাসিক হওয়ার লক্ষণ। যদি দেখেন এরকম লক্ষণ আপনার মধ্যে দেখা দিচ্ছে তাহলে আপনার মাসিক হওয়ার সময় চলে এসেছে। আশা করছি মাসিক হওয়ার লক্ষণ সমূহ জানতে পারলেন এগুলো আপনাদের কিছুটা হলেও উপকারে আসবে। 

মাসিক হওয়ার ব্যায়াম

মাসিক হওয়ার জন্য বেশ কিছু ব্যায়াম রয়েছে সেগুলো যদি আপনি নিয়মিত করতে পারেন তাহলে দ্রুত মাসিক হবে। দ্রুত মাসিক হওয়ার কিছু ব্যায়ামের নাম হলো উষ্ট্রাসন, পদ্মাআসন, কন্ধরাসন, মৎস্যআসন, ধনুরাসন এগুলো ব্যায়াম যদি নিয়মিত করতে পারেন তাহলে খুব দ্রুত মাসিক হবে। এই গুলো ব্যায়াম সম্পর্কে আরো বিস্তারিত জানতে চাইলে কমেন্ট করে আমাদের জানাতে পারেন। 

মাসিক হওয়ার ট্যাবলেট এর নাম

মাসিক হওয়ার জন্য কিছু ট্যাবলেট রয়েছে যেগুলো খেলে মাসিক দ্রুত হয় তবে। এগুলো ট্যাবলেট খাওয়ার চেয়ে প্রাকৃতিক উপায়ে মাসিক হওয়ানো বেশি ভালো। মাসিক হওয়ার ট্যাবলেট এর নাম গুলো হলো: 

  • Ethinor - price 5 tk
  • Normens - price 6 tk
  • Norestin - price 6.85 tk
  • Mensil N - price 7.50 tk
  • Menoral - price 6.50 tk
  • Norcolut - price 7.30 tk
  • Remens - price 5 tk
  • Menogia - price 6 tk
  • Feminor - price 5 tk
  • Noteron - price 5 tk

উপরোক্ত ট্যাবলেট গুলো মাসিক তাড়াতাড়ি হওয়ার জন্য কার্যকরি তবে যেকোনো ঔষধ খাওয়ার আগে অবশ্যই চিকিৎসক এর পরামর্শ অনুযায়ী খাবেন। ইন্টারনেটে যেকোনো ঔষধের নাম দেখে সেগুলো খাবেন না।

তাড়াতাড়ি মাসিক হওয়ার ঘরোয়া উপায় - একদিনে মাসিক হওয়ার ঘরোয়া উপায়: শেষ কথা

প্রিয় মা ও বোনেরা আজকের পোস্ট থেকে আপনারা জানতে পেরেছেন তাড়াতাড়ি মাসিক হওয়ার ঘরোয়া উপায় একদিনে মাসিক হওয়ার ঘরোয়া উপায় মাসিক বন্ধ হওয়ার কারণ ঔষধের নাম সহ আরো বেশ কিছু বিষয়ে আশা করছি এগুলো বিষয়ে জানতে পেরে কিছুটা হলেও উপকৃত হবেন। 

এই বিষয়ে যদি আপনাদের আরো কোনো প্রশ্ন বা মতামত থাকে তাহলে কমেন্ট করে আমাদের জানাতে পারেন। আর এই রকম আরো বিষয়ে জানতে আমাদের ওয়েবসাইট নিয়মিত ফলো করুন। নিজের শরীরের প্রতি যত্নশীল হন সুস্থ থাকুন।

এই পোস্টটি পরিচিতদের সাথে শেয়ার করুন

পূর্বের পোস্ট দেখুন পরবর্তী পোস্ট দেখুন