গর্ভাবস্থায় কি কি খাওয়া যাবে না ও গর্ভাবস্থায় কি কি খাওয়া যাবে জেনে নিন

সব সময় সুষম খাদ্যা খাওয়া প্রয়োজন কিন্তু একজন গর্ভবতী মহিলার আরো বেশি প্রয়োজন নিয়ম মেনে এবং সুষম খাদ্য খাওয়া তাই আজকে আপনাদের জানাবো গর্ভাবস্থায় কি কি খাওয়া যাবে না ও গর্ভাবস্থায় কি কি খাওয়া যাবে। আপনি যদি জানতে চেয়ে থাকেন গর্ভাবস্থায় কি কি খাওয়া যাবে না ও গর্ভাবস্থায় কি কি খাওয়া যাবে তাহলে সঠিক জায়গায় এসেছেন চলুন জেনে নেওয়া যাক গর্ভাবস্থায় কি কি খাওয়া যাবে না ও গর্ভাবস্থায় কি কি খাওয়া যাবে এই বিষয়ে বিস্তারিত। 

গর্ভাবস্থায় কি কি খাওয়া যাবে না ও গর্ভাবস্থায় কি কি খাওয়া যাবে

গর্ভাবস্থায় কি কি খাওয়া যাবে না ও গর্ভাবস্থায় কি কি খাওয়া যাবে গর্ভাবস্থায় কি কি ফল খাওয়া উচিত এই সকল বিষয়ে বিস্তারিতভাবে জানার জন্য পুরো আর্টিকেলটি মনোযোগ সহকারে শেষ পর্যন্ত। তাহলে চলুন শুরু করা যাক আজকের এই বিষয়গুলো নিয়ে আলোচনা।

গুগল নিউজে আমাদের ফলো করতে এখানে ক্লিক করুন তারপর ফলো করুন 

গর্ভাবস্থায় কি কি খাওয়া যাবে না

গর্ভকালীন সময় একজন মায়ের বেশি যত্ন নেওয়ার প্রয়োজন হয় কারণ এই সময় গর্ভবতী মায়ের পাশাপাশি শিশু জড়িত থাকে। তাই গর্ভাবস্থায় খাবারের দিকে বিশেষ নজর দিতে হয় কারণ এই সময় নিয়ম না মেনে খাবার খাওয়ার কারণে মা ও শিশু দুজনেরই ক্ষতি হওয়ার সম্ভাবনা থাকে। তাই আপনাদের জেনে রাখা প্রয়োজন গর্ভাবস্থায় কি কি খাওয়া যাবে না। তাহলে জেনে রাখুন গর্ভাবস্থায় কি কি খাওয়া যাবে না। 

  • ভাজাপোড়া খাবার
  • অতিরিক্ত তেল জাতীয় খাবার
  • চিপস
  • মাখন
  • চা বা কফি
  • বিভিন্ন রকম কোমল পানীয়
  • আইসক্রিম
  • কেক
  • অপাস্তরিত দুধ
  • পুডিং
  • পনির অথবা চিজ
  • বিস্কুট
  • অল্প সিদ্ধ ডিম, মাছ, মাংস
  • অ্যালকোহল যুক্ত পানীয়
  • সামুদ্রিক অর্ধ সিদ্ধ মাছ দিয়ে তৈরি খাবার
  • অতিরিক্ত ক্যাফেইন যুক্ত পানীয় 
  • কলিজা
  • ঘি
  • পেস্ট্রি
  • চকলেট
একজন সাধারণ মানুষ এগুলো খাবার এর মধ্যে প্রায় সব খাবারই খেতে পারে কিন্তু একজন গর্ভবতী মহিলার এই সকল খাবার এড়িয়ে চলা প্রয়োজন কারণ এই সকল খাবার খাওয়ার পরে শরীরে পুষ্টির অভাব দেখা দিতে পারে কারণ এই সকল খাবার ক্যালরি বহুল হয়ে থাকে। আবার এই সকল খাবার অতিরিক্ত খাবার ফলে গর্ভাবস্থায় ডায়াবেটিস হতে পারে অথবা বেশি হয়ে যেতে পারে এতে করে মা এবং শিশুর স্বাস্থ্য ঝুঁকি রয়েছে তাই গর্ভাবস্থায় এই সকল খাবার খাওয়া যাবেনা আশা করছি জানতে পারলেন গর্ভাবস্থায় কি কি খাওয়া যাবে না।  

গর্ভাবস্থায় কি কি খাওয়া যাবে 

গর্ভাবস্থায় কি কি খাওয়া যাবে না শুধুমাত্র এটা জানলেই হবে না এর থেকে বেশি জানা প্রয়োজন গর্ভাবস্থায় কি কি খাওয়া যাবে কারণ গর্ভাবস্থায় কি কি খাওয়া যাবে এটা যদি না জেনে আপনি বিভিন্ন রকম খাবার খান তাহলে এগুলো আপনার ক্ষতি করবে। তাই আপনার গর্ভাবস্থার খাবার তালিকা জেনে সেগুলো খাবার খেতে হবে। জেনে রাখুন গর্ভাবস্থায় কি কি খাওয়া যাবে। 

  • ভাত
  • রুটি
  • মাছ
  • মাংস
  • ডাল
  • ডিম
  • দুধ
  • আলু
  • ওটস
  • দুগ্ধ জাতীয় খাবার
  • টাটকা শাকসবজি
  • টাটকা সবুজ ফলমূল
  • আমিষ যুক্ত খাবার যেমন মটরশুটি, বাদাম
গর্ভাবস্থায় এ সকল খাবার খাবেন এগুলো খাবার অনেক পুষ্টিকর হয়ে থাকে সেজন্য এগুলো খাবার খেলে গর্ভবতী মায়ের পুষ্টির অভাব পূরণ হয় এতে করে সন্তানের জন্য ভালো। এইগুলো খাবার খাওয়ার পাশাপাশি কিছু টক জাতীয় খাবার খেতে পারেন যেমন কমলা, মালটা, আমলকি, জাম্বুরা, আমড়া, লেবু, জলপাই কারণ এগুলোর মধ্যে ভিটামিন সি থাকে যা একজন গর্ভবতী নারীর জন্য অত্যন্ত প্রয়োজনীয়। তবে এগুলো খাবার প্রতিদিন পরিমাণ মতো খাবেন অতিরিক্ত বেশি পরিমাণ খাবেন না একবারে। 

গর্ভাবস্থায় কি কি ফল খাওয়া উচিত

গর্ভাবস্থায় পুষ্টিকর খাবার বেশি খাওয়া প্রয়োজন সেজন্য গর্ভাবস্থায় বেশি বেশি বিভিন্ন রকম ফল খাওয়া প্রয়োজন কারণ এই ফলগুলোর মধ্যে বিভিন্ন রকম ভিটামিন এবং পুষ্টিগুণ থাকে এবং সবুজ ফলের মধ্যে ক্যারোটিন থাকে যা গর্ভের শিশুর সুস্থ ও স্বাভাবিক বৃদ্ধি করে থাকে। তাই গর্ভাবস্থায় কি কি ফল খাওয়া উচিত জেনে রাখুন।

  • কলা
  • আম
  • পেয়ারা 
  • আপেল
  • কমলা
  • কিউই ফল
  • নাশপাতি
  • মালটা
  • ডালিম
  • জাম্বুরা
  • লেবু
  • আমলকি
  • আতা ফল
  • অ্যাভোকাডো
  • বাঙ্গি
  • স্ট্রবেরি
  • ব্লুবেরি
  • চেরি ফল 
গর্ভাবস্থায়ী এগুলো ফল খাওয়া উচিত এবং প্রয়োজন কারণ এগুলো ফলের মধ্যে একজন গর্ভবতী মহিলার যেগুলো পুষ্টিগুণ প্রয়োজন সকল পুষ্টিগুণ রয়েছে। তবে মনে রাখবেন এই সকল ফলের মধ্যে পুষ্টি রয়েছে বলে অতিরিক্ত পরিমাণ খাওয়া যাবে না অতিরিক্ত খেলে উপকারের চেয়ে অপকারিতা বেশি হবে। তাই গর্ভাবস্থায় প্রতিদিন নিয়ম মেনে পরিমান মত এইগুলো ফল খাবেন। 

গর্ভাবস্থায় কি কি ফল খাওয়া যাবে না

উপরে আপনারা জানলেন গর্ভাবস্থায় কি কি খাওয়া যাবে অর্থাৎ কি কি ফল খাওয়া যাবে কিন্তু আপনাদের আরো একটি বিষয় জেনে রাখা প্রয়োজন সেটা হল গর্ভাবস্থায় কি কি ফল খাওয়া যাবে না। কিছু কিছু ফল রয়েছে যেগুলো গর্ভাবস্থায় খেলে গর্ভবতী মা এবং শিশুর ক্ষতি হতে পারে এমনকি গর্ভপাত হতে পারে তাই জেনে রাখুন গর্ভাবস্থায় কি কি ফল খাওয়া যাবে না।

গর্ভাবস্থায় যেসব ফল খাওয়া যাবেনা

  • আনারস
  • পেঁপে
  • তেঁতুল
  • খেজুর 
  • আঙ্গুর
  • তরমুজ
  • ক্যানজাত টমেটো
  • ফরমালিনযুক্ত সকল ফল
গর্ভাবস্থায় এই সকল ফল না খাওয়াই ভালো কারণ এগুলো ফল গর্ভবতী মায়ের জন্য অনেক ক্ষতিকর হতে পারে। তাই গর্ভাবস্থায় এই সকল ফল খাবেন না। আশা করছি জানতে পারলেন গর্ভাবস্থায় কি কি ফল খাওয়া যাবে না। 

গর্ভাবস্থায় কি কি সবজি খাওয়া যাবে না

কিছু সবজি রয়েছে যেগুলো গর্ভাবস্থায় খেলে গর্ভবতী মায়ের ক্ষতি হতে পারে তাই গর্ভাবস্থায় সকল সবজি খাওয়া উচিত নয় কিন্তু অনেকেরই অজানা গর্ভাবস্থায় কি কি সবজি খাওয়া যাবে না তাই এই অংশ থেকে জেনে নিন গর্ভাবস্থায় কি কি সবজি খাওয়া যাবে না সেগুলোর নাম। গর্ভাবস্থায় যেগুলো সবজি খাওয়া যাবে না সেগুলো হলো:

  • সজিনা ডাটা
  • করলা
  • এবং না ধোয়া বা অপরিষ্কার সকল সবজি
গর্ভাবস্থায় সবজি খাওয়াতে তেমন কোন নিষেধ নেই তবে আপনি যদি গর্ভাবস্থায় সবজি খেতে চান তাহলে এগুলো ভালোভাবে পরিষ্কার করে ধুয়ে রান্না করে খেতে হবে। আর প্রতিদিন পরিমাণ মতো খেতে হবে তাহলে কোন সমস্যা হবে না আশা করছি জানতে পারলেন গর্ভাবস্থায় কি কি সবজি খাওয়া যাবে না।

গর্ভাবস্থায় কি কি সবজি খাওয়া যাবে 

গর্ভাবস্থায় বেশি বেশি শাক-সবজি খাওয়া প্রয়োজন কারণ এগুলোর মধ্যে বিভিন্ন রকম পুষ্টিগুণ থাকে যেমন ভিটামিন প্রোটিন ক্যালসিয়াম সহ আরো বিভিন্ন রকম পুষ্টি তাই গর্ভাবস্থায় যেগুলো শাকসবজি খাওয়া প্রয়োজন সেগুলো হলো। গর্ভাবস্থায় প্রায় সব ধরনের শাকসবজি খাওয়া যায় তবে এগুলো শাকসবজি খাওয়ার আগে ভালোভাবে পরিষ্কার পানি দিয়ে ধুয়ে নিতে হবে।

  • মিষ্টি আলু
  • ব্রোকলি
  • টমেটো
  • মিষ্টি কুমড়া
  • পালং শাক
  • গাজর
  • ধনেপাতা
  • ক্যাপসিকাম
  • বিটরুট
  • মটরশুঁটি
গর্ভাবস্থায় অন্যান্য খাবার বেশি খাওয়ার চেয়ে এগুলো শাকসবজি বেশি খাওয়ার চেষ্টা করুন। কারণ আপনারা হয়তো জানেন অন্যান্য খাবারের থেকে শাকসবজি বেশি পুষ্টিকর তাই গর্ভাবস্থায় অন্যান্য খাবারের থেকে এগুলো শাকসবজি বেশি খাবেন। 

গর্ভাবস্থায় কি কি মাছ খাওয়া যাবে না

উপরের অংশগুলোতে আপনারা ইতিমধ্যে জানতে পেরেছেন গর্ভাবস্থায় কি কি খাওয়া যাবে না ও কি কি খাওয়া উচিত। কিন্তু এবার জানব গর্ভাবস্থায় কি কি মাছ খাওয়া যাবে না। গর্ভাবস্থায় অনেক মাছ খাওয়া যায় কিন্তু কিছু কিছু মাছ রয়েছে যেগুলো খাওয়া যাবে না সেই মাছগুলো হলো

  • হাঙ্গর মাছ
  • তলোয়ার মাছ
  • ম্যাকেরেল মাছ
  • টাইল ফিস
  • তেলাপিয়া মাছ
গর্ভাবস্থায় এগুলো মাছ খাওয়া যাবেনা কারণ এগুলো মাছের মধ্যে মার্কারির পরিমাণ বেশি সেজন্য এই মাছ গুলো খেলে গর্ভবতী মায়ের স্নায়ুতন্ত্রের ক্ষতি করে তাই আশা করছি আপনারা গর্ভাবস্থায় এই গুলো মাছ খাওয়া থেকে বিরত থাকবেন তবে অনেক মাছ রয়েছে সেগুলো খেতে পারেন নিচে জেনে নিন গর্ভাবস্থায় কি কি মাছ খাওয়া যাবে।

গর্ভাবস্থায় কি কি মাছ খাওয়া যাবে

ছোট বড় অনেক মাছ রয়েছে যেগুলো গর্ভাবস্থায় খাওয়া যায় এবং এগুলো মাছ গর্ভাবস্থায় খাওয়া প্রয়োজন কারণ এগুলো মাছের মধ্যে থাকে ওমেগা থ্রি ফ্যাটি এসিড তাই গর্ভাবস্থায় এ সকল মাছ খেতে পারেন। গর্ভাবস্থায় যেগুলো মাছ খাওয়া যাবে সেগুলো হলো   

  • পুটি মাছ
  • ইলিশ মাছ
  • রুই মাছ
  • কাতল মাছ
  • বাটা মাছ
  • চাপিলা মাছ
  • বোয়াল মাছ
  • পাবদা মাছ
  • গলদা চিংড়ি
  • বাগদা চিংড়ি
  • বাঁশপাতা মাছ
  • মাগুর মাছ
  • টেংরা মাছ
  • শোল মাছ
গর্ভাবস্থায় এই সকল মাছ খেতে পারেন তবে চিংড়ি মাছ খাওয়ার ক্ষেত্রে কিছুটা সতর্কতা অবলম্বন করতে হবে সপ্তাহে একদিনের বেশি চিংড়ি মাছ খাওয়া যাবে না এবং বেশি বেশি ছোট ছোট মাছ খেতে হবে যেমন মলা ঢেলা জাতীয় মাছ। গর্ভাবস্থায় সপ্তাহে ২৮০ গ্রাম মাছ খাবেন। এভাবে নিয়ম মেনে যদি গর্ভাবস্থায় মাছ খান তাহলে এই মাছগুলো আপনাকে বেশি পুষ্টি যোগাবে।  

গর্ভাবস্থায় কি তেঁতুল খাওয়া যাবে

অনেক মহিলা রয়েছে যারা গর্ভাবস্থায় তেঁতুল খেতে বেশ পছন্দ করেন আবার অনেকে প্রশ্ন করে থাকেন গর্ভাবস্থায় কি তেঁতুল খাওয়া যাবে? হ্যাঁ গর্ভাবস্থায় তেঁতুল খাওয়া যাবে তবে অতিরিক্ত বেশি খাওয়া যাবে না এতে করে গর্ভবতী মহিলাদের মর্নিং সিকনেস এর উপসর্গ বেড়ে যেতে পারে এতে করে পেটের সমস্যা হতে পারে এবং বমি হতে পারে তাই গর্ভাবস্থায় তেতুল খেলে কম পরিমাণে খাবেন। 

গর্ভাবস্থায় কি কি খাওয়া যাবে না ও গর্ভাবস্থায় কি কি খাওয়া যাবে: শেষ কথা 

প্রিয় বন্ধুরা আজকের আর্টিকেলে আপনাদের জানালাম গর্ভাবস্থায় কি কি খাওয়া যাবে না ও গর্ভাবস্থায় কি কি খাওয়া যাবে আশা করছি আজকের আর্টিকেলটি যদি আপনারা শেষ পর্যন্ত পড়েন তাহলে গর্ভাবস্থায় কি কি খাওয়া যাবে না ও গর্ভাবস্থায় কি কি খাওয়া যাবে এ বিষয়ে ভালোভাবে জানতে পেরে গেছেন।

তার পরেও যদি এই বিষয়ে আরো কিছু জানার থাকে তাহলে কমেন্ট করে আমাদের জানাতে পারেন আমরা আপনাদের উত্তরের মাধ্যমে জানিয়ে দিব। এবং আমাদের ওয়েবসাইটে এরকম তথ্যমূলক আর্টিকেল নিয়মিত পাবলিশ করা হয় তাই এরকম আরো তথ্য পেতে আমাদের ওয়েবসাইট নিয়মিত ভিজিট করতে পারেন। এতক্ষণ আমাদের সাথে থাকার জন্য অসংখ্য ধন্যবাদ। 

এই পোস্টটি পরিচিতদের সাথে শেয়ার করুন

পূর্বের পোস্ট দেখুন পরবর্তী পোস্ট দেখুন