দূর্গা পূজা বাংলা কত তারিখ - দূর্গা পূজা কত দিন বাকি ২০২৪ - দুর্গার কাহিনী

দূর্গা পূজা বাংলা কত তারিখ দূর্গা পূজা কত দিন বাকি এবং দুর্গার কাহিনী সম্পর্কে যদি জানতে চাই আমাদের আর্টিকেলটি ওপেন করে তাহলে সঠিক জায়গায় এসেছেন। আজকের আর্টিকেলে আমরা জানবো দূর্গা পূজা বাংলা কত তারিখ এই বিষয় সহ দূর্গা পূজা সম্পর্কিত আরো বেশ কিছু বিষয়ে। তাহলে চলুন আজকের আর্টিকেল থেকে জেনে নেওয়া যাক দূর্গা পূজা বাংলা কত তারিখ এ সম্পর্কে। 

দূর্গা পূজা বাংলা কত তারিখ

দূর্গা পূজা বাংলা কত তারিখ দূর্গা পূজা কত দিন বাকি দুর্গার কাহিনী দূর্গা পূজা প্রথম কে করেন দেবী দুর্গার দশ হাত কেন দেবী দুর্গার কোন হাতে কোন অস্ত্র থাকে এ সকল বিষয়ে বিস্তারিত জানার জন্য পুরো আর্টিকেলটি মনোযোগ সহকারে শেষ পর্যন্ত পড়ে ফেলুন।

দূর্গা পূজা বাংলা কত তারিখ - দুর্গাপূজা কত তারিখে ২০২৩

আমরা সবাই জানি যে প্রতিবছর একবার করে দুর্গাপূজা হয়ে থাকে। আর ২০২৩ সালের দূর্গা পূজা আর কিছুদিনের মধ্যে হবে কিন্তু অনেকেই জানেনা দুর্গা পূজা বাংলা কত তারিখ। তাই আজকের আর্টিকেলে আমরা আপনাদের জানানোর চেষ্টা করব দূর্গা পূজা বাংলা এবং ইংরেজি কত তারিখে। ২০২৩ সালের দূর্গা পূজার সমস্ত তারিখ দেখে নিন নিচের ছকে।

উৎসবের নাম ইংরেজি তারিখ বাংলা তারিখ দিন/বার
মহালয়া ১৪ অক্টোবর ২৬ আশ্বিন শনিবার
মহা পঞ্চমী ১৯ অক্টোবর ০১ কার্তিক বৃহস্পতিবার
মহা ষষ্ঠী ২০ অক্টোবর ০২ কার্তিক শুক্রবার
মহা সপ্তমী ২১ অক্টোবর ০৩ কার্তিক শনিবার
মহা অষ্টমী ২২ অক্টোবর ০৪ কার্তিক রবিবার
মহা নবমী ২৩ অক্টোবর ০৫ কার্তিক সোমবার
মহা দশমী ২৪ অক্টোবর ০৬ কার্তিক মঙ্গলবার

দূর্গা পূজা কত দিন বাকি ২০২৩ 

হিন্দুধর্মের সবচেয়ে বড় একটি পূজা হলো দূর্গা পূজা। ২০২৩ সালে এই দূর্গা পূজা আসতে আর কয়েকদিন বাকি রয়েছে। দূর্গা পূজা মহা পঞ্চমী থেকে শুরু হয়ে মহা দশমী তে শেষ হয়ে যায় সেই অনুযায়ী দূর্গা পূজার মহালয়া আসতে আর মাত্র তিন দিন আছে। মহা পঞ্চমী থেকে যেহুতু দূর্গা পূজা শুরু সেই অনুযায়ী দূর্গা পূজার আর মাত্র ৮ দিন বাকি আছে। অর্থ্যাৎ দূর্গা পূজার মহা পঞ্চমী ১৯ অক্টোবর ২০২৩, ১ কার্তিক ১৪৩০ বৃহস্পতিবার।

দূর্গা পূজা আর কত দিন বাকি 2023

দূর্গা পূজা আর ৮ দিন বাকি। ৮ দিন পরে হিন্দু ধর্মাবলম্বীদের মহা উৎসব দূর্গা পূজা শুরু হবে আর শেষ হবে ২৪ অক্টোবর ২০২৩ তারিখে।  

দূর্গা পূজা কত তারিখে

আজকের পোস্টের উপরের অংশ পড়ে আপনারা এতক্ষণে জানতে পেরে গেছেন যে দূর্গা পূজা কত তারিখে তারপরেও এই অংশ থেকে জেনে নিন দূর্গা পূজা কত তারিখে। দূর্গা পূজা শুরু হবে ১৯ অক্টোবর ২০২৩ তারিখে। আর দূর্গা পূজা শুরু হবে বাংলার ০১ কার্তিক ১৪৩০ তারিখে।  

দুর্গার কাহিনী - দেবী দুর্গার ইতিহাস pdf

অনেকে ইন্টারনেটে সার্চ করে থাকেন দূর্গার কাহিনি বা দেবি দুর্গার ইতিহাস pdf সম্পর্কে জানতে। তাই এখন আপনাদের জানাবো দূর্গার কাহিনি। 

যিনি সংকট বা দুর্গতি থেকে রক্ষা করেন তাকে দূর্গা বলা হয়। দেবি দূর্গা দুর্গম নামক অসুরকে বধ করেছিলো। সেজন্য হিন্দু ধর্মে তিনি একজন দেবি। দেবি দূর্গাকে আদ্যশক্তির রণ রঙ্গিনী মহাদেবির রুপ বলে মান্য করা হয়ে থাকে। দেবি দূর্গার অনেক নাম রয়েছে যেমন: যোগমায়া, চণ্ডিকা, বৈষ্ণবী, নারায়ণী, অম্বিকা, মহামায়া, মহিষাসুরসংহন্রী, অদ্রিজা, কাত্যায়নী, নগনন্দিনী, দাক্ষায়ণী, আনন্দময়ী, সিংহবাহিনী ইত্যাদি। 

আরো পড়ুন: বাংলাদেশের নদী কয়টি - বাংলাদেশের প্রধান নদী কয়টি

দেবি দূর্গা সনাতন ধর্মের  প্রকৃতি ও সৃষ্টির আদি কারণ হিসেবে জানা গেছে। শিবের স্ত্রী পার্বতীর উগ্র রুপ।  গণেশ ও কার্তিকের জননী এবং কালীর অন্যরুপ। বাংলার মঙ্গলকাব্য ও আগমনী দেবী দূর্গা রুপে শিবজায়া হিমালয় দুহিতা পার্বতীর পুরো পরিবারের পিতৃগৃহে আনন্দঘন দিন গুলার। এবং তার বিবাহিত জীবনের অনেক সুন্দর বর্ণনা পাওয়া গেছে। দেবি পার্বতী দূর্গা নামে অভিহিত হওয়ার কারণ হলো  দেবতাদের অনুরোধে তিনি অসুরকে বধ করেছিলেন।

দূর্গা পূজা প্রথম কে করেন

আমাদের এই বাংলাতে দূর্গাপূজা প্রথম কে করেন সেটা কি আপনি জানেন হয়তো জানেন না যদি না জেনে থাকেন তাহলে এখন জেনে নিন দূর্গা পূজা প্রথম কে করেন। জনশ্রুতি আছে ইতিহাসখ্যাত রাজশাহীর তাহিরপুর রাজবংশের রাজা ছিলেন কংস নারায়ণ রায়। 

তিনি প্রথম ৮৮৭ বঙ্গাব্দের আশ্বিন মাসের প্রথম দিকে দেবি দূর্গার প্রতিমা গড়ে তুলেন এবং প্রথম দূর্গা পূজা করেন। রাজা কংস নারায়ণ এর প্রথম দূর্গাপূজা হয়েছিল রাজবাড়ির পাশে ও প্রধান ফটকের সাথেই অবস্থিত এক বেদিতে।

দেবী দুর্গার দশ হাত কেন

দেবি দূর্গার দশ হাত কেন?  দেবি দূর্গার দশ হাত তৈরি হয় বা আবির্ভূত হয় প্রত্যেকটি দেবতার তেজে। জ্যোতিশাস্ত্র থেকে জানা যায় পৃথিবীতে দশটি দিক রয়েছে তাই এই দশটি হাত এর আবির্ভাব। পুরাণে বলা হয়েছে মহিষাসুরকে বধ করার জন্য বরুণ, কুবের, যম, অগ্নি, ইন্দ্র, ঈশান, নৈঋত, বায়ু, বিষ্ণু ও ব্রহ্মা  নামের দশটি হাত সৃষ্টি। 

দেবি দূর্গার দশ অস্ত্রের নাম

দেবি দূর্গার দশটি হাত আবির্ভূত হয়েছিল আর এই দশটি হাতে দশটি অস্ত্র ছিলো সেই অস্ত্রের মাধ্যমেই অসুরকে বধ করে সনাতন ধর্মাবলম্বীদের রক্ষা করেছিলেন। দেবি দূর্গার দশটি হাতে থাকা দশটি অস্ত্রের নাম গুলো হলো।

  • তীর ধনুক 
  • তলোয়ার 
  • ত্রিশূল
  • পদ্মফুল
  • সুদর্শন চক্র 
  • বর্শা
  • বর্জ্র
  • কুঠার
  • গদা
  • নাগশাপ

প্রায়শই জিজ্ঞাসিত কিছু প্রশ্ন ও উত্তর FAQs 

প্রশ্ন: দেবি দূর্গাকে কে কোন অস্ত্র দিয়েছিলেন?

উত্তর: দেবি দূর্গার দশটি অস্ত্র তারমধ্যে  দেবি দূর্সুগাকে দর্শন চক্র দিয়েছেন ভগবান শ্রী বিষ্ণু, ত্রিশূল দিয়েছিলেন দেবাদিদেব মহাদেব, তির ধনুক দিয়েছিলেন সূর্যদেব ও পবনদেব, পদ্ম দিয়েছিলেন ব্রহ্মাদেব, অসি দিয়েছিলেন গণেশদেব, বর্শা দিয়েছিলেন অগ্নিদেব,  কুঠার দিয়েছিলেন বিশ্বকর্মা, দেবি দূর্গাকে বর্জ্র দিয়েছিলেন ইন্দ্রদেব, দেবি দূর্গাকে সর্প দিয়েছিলেন মহাদেব।

প্রশ্ন: দূর্গা আর কালী কি এক?

উত্তর: হ্যা সমস্ত মন্দকে দূর করতে মন্ত্র পাঠ করে হয় যাতে করে দেবি দূর্গা সমস্ত মন্দ দূর করে দেন। সেজন্য সমস্ত মন্দ দূর করতে দেবি দূর্গা কালিতে রুপান্তরিত হয়ে যায়। সেজন্য বলা যায় দূর্গা আর কালি এক।

প্রশ্ন: দূর্গা ও পার্বতীর সম্পর্ক কি?

উত্তর: দেবি দূর্গা পার্বতী দেবির গর্ভে থেকে জন্মগ্রহণ করেছিলেন। সেই অনুযায়ী দূর্গা ও পার্বতীর সম্পর্ক মা ও মেয়ে।

দূর্গা পূজা বাংলা কত তারিখ - দূর্গা পূজা কত দিন বাকি ২০২৩ - দুর্গার কাহিনী: শেষ কথা 

প্রিয় পাঠক ও পাঠিকা আজকের পোস্টে আপনাদের জানিয়েছি দূর্গা পূজা বাংলা কত তারিখ দূর্গা পূজা কত দিন বাকি ২০২৩ দূর্গা পূজা আর কত দিন বাকি 2023 দূর্গা পূজা কত তারিখে দুর্গার কাহিনী দেবী দুর্গার ইতিহাস pdf দূর্গা পূজা প্রথম কে করেন দেবী দুর্গার দশ হাত কেন দেবি দূর্গার দশ অস্ত্রের নাম কি এই সকল বিষয়ে।

আশা করছি আপনারা এই সকল বিষয়ে বিস্তারিতভাবে জানতে পেরেছেন তারপরও যদি এই বিষয়ে আরো কিছু জানা থাকে তাহলে কমেন্ট করে আমাদের জানাতে পারেন এবং এরকম আরো তথ্যমূলক আর্টিকেল পেতে আমাদের JONOPRIYO BLOG ওয়েবসাইট নিয়মিত ভিজিট করুন এতক্ষণ আমাদের সাথে থাকার জন্য আপনাদেরকে অসংখ্য ধন্যবাদ। 

এই পোস্টটি পরিচিতদের সাথে শেয়ার করুন

পূর্বের পোস্ট দেখুন পরবর্তী পোস্ট দেখুন